বাউল করিম শাহের পাশে দাঁড়িয়েছে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৬ মে , ২০১৪ সময় ১০:১০ অপরাহ্ণ

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিত্সাধীন একুশে পদকপ্রাপ্ত বাউল করিম শাহের পাশে দাঁড়িয়েছে জেলা প্রশাসন। আজ মঙ্গলবার রাতে জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন হাসপাতালে তাঁকে দেখতে যান এবং তাঁকে ১০ হাজার টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। আগামীকাল বুধবার সকালে এ টাকা চেকের মাধ্যমে দেওয়া হবে।

এ ছাড়া করিম শাহের বিছানাপত্র, খাবারসহ সব ব্যাপারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে এবং বিশেষ নজরে চিকিত্সাসেবা দিতে হাসপাতালের চিকিত্সকদের নির্দেশ দেন জেলা প্রশাসক। এ সময় সেখানে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক আজিজুন নাহার, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সালেক মাসুদ মিয়া, জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক আবদুল গণি উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসককে কাছে পেয়ে করিম শাহ অভিযোগ করে বলেন, ‘লালন একাডেমি আমার জন্য কিছু করল না।’ জবাবে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘আপনার সব চিকিত্সা ও চলার জন্য সর রকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’
জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক আবদুল গণি প্রথম আলোকে জানান, সকালে প্রথম আলোতে করিম শাহর সংবাদ দেখে সমাজকল্যাণমন্ত্রী মহসিন আলী সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সাইদুর রহমানকে খোঁজ নিতে বলেন। সকালেই ফোন পেয়ে করিম শাহর খাবারসহ সব চিকিত্সাসেবার ব্যয় বহন করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, প্রথম আলো করিম শাহর সংবাদ প্রচার করে মহতী কাজ করেছে।
১৬ দিন ধরে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ১০ নম্বর বিছানায় করিম শাহ চিকিত্সাধীন। তাঁর ফুসফুসে সমস্যা হয়েছে। তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছেন।
আজ মঙ্গলবার প্রথম আলোর ৫ম পৃষ্ঠায় ‘হাসপাতালে বাউল করিম শাহর আকুতি, পড়ি আছি চিকিত্সা করাতি পারছিনে’ শিরোনামে ছবিসহ সংবাদ প্রচার হয়।