‘বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করার জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’শেখ হাসিনা

প্রকাশ:| শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১১:৩২ অপরাহ্ণ

‘সবাই মিলে ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়ব। সেখানে কোনো অসমতা থাকবে না।’

শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বইমেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করার জন্য চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।’

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলা স্থানান্তর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এতে বাঙালি গর্বিত হয়েছে। কারণ এ সোহরাওয়ার্দী ঘিরে অনেক ইসিহাস রয়েছে। তাছাড়া সোহরাওয়ার্দীতে বইমেলা স্থানান্তরের ভালো না মন্দ তা ভবিষ্যৎই বলে দেবে।’
বাংলা একাডেমি থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পর্যন্ত আন্ডারপাস নির্মাণ করা হবে বলেও প্রধানমন্ত্রী জানান।

তিনি বলেন, ‘আমারা ইতোমধ্যে প্রত্যেক ইউনিয়নে ইন্টারনেট সার্ভিস চালু করেছি। ই-বুকের কাজও অব্যাহত রেখেছি। ফলে আগামীতে বই অনলাইনে দিতে পারবো।’

এরআগে প্রধানমন্ত্রীর কাছে থেকে সম্মাননাপত্র ও পুরস্কারের চেক গ্রহণ করেন এবারের বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার পাওয়া লেখকরা।

এছাড়া বাংলা একাডেমি প্রকাশিত বিবর্তনমূলক বাংলা অভিধান প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সচিব ড. রণজিৎ কুমার বিশ্বাস এনডিসি, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, বাংলা একাডেমির সভাপতি প্রফেসর আনিসুজ্জামান।


আরোও সংবাদ