বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা ঘোষনার দাবি

প্রকাশ:| শনিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৫ সময় ১০:৫৪ অপরাহ্ণ

‘জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ কর, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকাজ দ্রুত শেষ কর’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম-বোয়াফ ২১শে ফেব্রুয়ারী, ২০১৫ রোজ শনিবার বেলা ১২টা ১মিনিটের সময় ঢাকা কেন্দ্রীয় ‘শহীদ মিনার’ এ পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে ৫২’র ভাষা আন্দোলনের বীর শহীদ’দের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

সংগঠনের সভাপতি ব্লগার কবীর চৌধুরী তন্ময় তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার সহ নাম না জানা যে সকল বীর শহীদ’র রক্তে অর্জিত আজকের এই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন হলেও বাস্তবে সকল স্তরে বাংলার ব্যবহার ঠিক মত হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, শুধু দিবস পালনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না রেখে বাংলা ভাষা সঠিক ভাবে সর্বস্তরে ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। বিশ্বের অন্যান্য ভাষার সাথে বাংলা ভাষার ব্যবহার যাতে সহজ ও সাবলীল হয়, সে ব্যাপারে সরকারকে উদ্যোগ করতে হবে এবং নতুন প্রজন্মের কাছে বাংলা ভাষার ইতিহাস ঐতিহ্য ভালো ভাবে তুলে ধরতে হবে।

ব্লগার কবীর চৌধুরী তন্ময় বলেন, মাতৃভাষা দিবস থেকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেব এই দিনটি যেভাবে মর্যাদার সহিত পালন করা হয়, ঠিক তেমনি এই ভাষার ব্যবহার, গুরুত্ব ও অর্জিত ইতিহাস বিশ্বের প্রতিটি মানুষের কাছে পৌছাতে হবে।

সংগঠনের সভাপতি বলেন, বিশ্বের একটি মাত্র ভাষা যে ভাষার জন্য বুকের তাজা রক্ত বিলিয়ে দিয়েছিল বাংলার দামাল ছেলেরা। অনতিবিলম্বে রক্তে অর্জিত আমাদের এই বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে ঘোষনা করার জোর দাবি করছি।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদ’দের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের সহ-সভাপতি রাশিদা হক কনিকা, এড. ইয়াছিন করিম, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শামীম এইচ চৌধুরী, ইমরান খান শ্রাবন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুল্লাহ মিছবাহ, মোস্তাফিজুর রহমান রাজিব, প্রচার সম্পাদক ব্লগার রফিকুল ইসলাম রাকিব, আরাফাত হোসেন নিলয়, ডেবিট এ হালদার, ইসহাক রনি সহ গণজাগরন মঞ্চে কর্মী ও সংগঠকবৃন্দ এবং স্বাধীনতা স্বপক্ষের বিভিন্ন সংগঠক।