বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি আনোয়ার হোসেনের প্রথম জানাজা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ০২:০৭ অপরাহ্ণ

আনোয়ার হোসেন-Anwarজনপ্রিয় অভিনেতা ও বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি আনোয়ার হোসেনের প্রথম জানাজা শুক্রবার বাদজুমা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত হবে। বেলা তিনটায় এফডিসিতে দ্বিতীয় জানাজা শেষে বাদ আছর তাকে মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

বৃহস্পতিবার রাত দুইটার দিকে রাজধানীর পান্থপথের স্কয়ার হাসপাতালে মারা যান আনোয়ার হোসেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮২ বছর। বেশ কিছু দিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন এই কিংবদন্তি অভিনেতা।

এর আগে পারিবারিক সূত্র জানায়, বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাকে বায়তুল মোকাররমের উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে বাদ জুমা তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

‘গত ২০ আগস্ট তার মেয়ে জিনাত বাংলানিউজকে জানিয়েছিলেন, ১৮ আগস্ট রোববার থেকে বাবার শরীরের অবস্থা ভালো যাচ্ছে না। পরে আমি তাঁকে কলাবাগানে আমার বাসায় নিয়ে আসি। এরপর বিভিন্ন টেস্টের পর জানা যায়, তাঁর গল ব্লাডারে পাথর রয়েছে। বাবা মুখ দিয়ে কিছুই খেতে পারছেন না। তাই, আপাতত স্যালাইনের মাধ্যমে খাবার দেওয়া হচ্ছে।

নবাব সিরাজউদ্দৌল‍া’ ছবিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করে আনোয়ার হোসেন ‘বাংলা চলচ্চিত্রের মুকুটহীন সম্রাট` অভিধা পেয়েছিলেন।

বরেণ্য এই অভিনয় শিল্পী ১৯৩১ সালের ৬ নভেম্বর জামালপুর জেলার সরুলিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম নজির হোসেন ও মায়ের নাম সাঈদা খাতুন। তিনি ছিলেন বাবা-মায়ের তৃতীয় সন্তান।

১৯৫১ সালে জামালপুর থেকে ম্যাট্রিক পাসের পর ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন তিনি।

স্কুলজীবন থেকে শুরু হয় তার অভিনয় জীবন। প্রথম অভিনীত নাটক- ‘পদক্ষেপ’ (আসকার ইবনে সাইকের লেখা)।

১৯৫৭ সালে আনোয়ার হোসেন ঢাকায় চলে আসেন। এ বছরই পরিচয় ঘটে পরিচালক মহিউদ্দিনের সঙ্গে। তারপরই তিনি জড়িয়ে পড়েন সিনেমায়। তার অভিনীত প্রথম ছবির নাম- ‘তোমার আমার’।

অভিনেতা আনোয়ার হোসেন অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে- ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা`, `নাগর দোলা`, `জীবন থেকে নেয়া’, ‘সূর্যস্নান’, ‘লাঠিয়াল’, ‘জোয়ার এলো’, ‘কাঁচের দেয়াল’, ‘নাচঘর’, ‘দুই দিগন্ত’, ‘বন্ধন’, ‘পালঙ্ক’, ‘অপরাজেয়’, ‘পরশমণি’, ‘শহীদ তিতুমীর’, ‘ঈশা খাঁ’, ‘অরুণ বরুণ কিরণমালা’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, `রংবাজ`, `নয়নমনি`, `রূপালী সৈকতে`, `ধীরে বহে মেঘনা`,`ভাত দে` উল্লেখযোগ্য। নায়ক হিসেবে তার শেষ ছবি ‘সূর্য সংগ্রাম’।

পুরস্কারপ্রাপ্তি: কিংবদন্তি অভিনেতা আনোয়ার হোসেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১০, আজীবন সম্মাননা, পাকিস্তানের নিগার ও বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার বিকেলে তাকে দেখতে স্কয়ার হাসপাতালে যান। এ সময় চিকিত্সার জন্য তার আত্মীয়-স্বজনের কাছে ১০ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করেন প্রধানমন্ত্রী।