বাংলাদেশ খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত হয়েছে

প্রকাশ:| সোমবার, ২৪ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ১১:৫২ অপরাহ্ণ

কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সভায় এম.এ সালাম

চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম.এ সালাম বলেছেন, বাংলাদেশের প্রাণ কৃষক সমাজের উন্নতি হলেই দেশের প্রকৃত অগ্রগতি সাধিত হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সেই উপলব্দি থেকে কৃষকদের সংগঠিত করতেই বাংলাদেশ কৃষকলীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। কৃষকদের স্বার্থে গঠিত ‘বঙ্গবন্ধুর গ্রাম সমবায় ছিল, গরীব মেহনতী মানুষের বাঁচার উপায়’। বঙ্গবন্ধুর নির্মম হত্যাকান্ডের পর রাস্ট্র ক্ষমতা দখলকারীরা কৃষক সমাজের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে বাংলাদেশকে মঙ্গা ও খাদ্য ঘাটতির দেশে পরিণত করেছিল। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় এসে একেরপর এক কৃষকবান্ধব কর্মসূচী গ্রহণের মাধ্যমে দেশকে আজ খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত করেছেন। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনগণের কাছে তুলে ধরে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পুনরায় বিজয়ী করতে কাজ করার জন্য কৃষকলীগ নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান। তিনি আজ ২৪ এপ্রিল সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা কৃষকলীগ আয়োজিত প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। উত্তর জেলা কৃষকলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, সদস্য আলহাজ্ব জাফর আহমেদ, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সদস্য মোস্তাফা কামাল চৌধুরী, দক্ষিন জেলা কৃষকলীগের সভাপতি আতিকুর রহমান চৌধুরী, উত্তর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট বাসন্তী প্রভা পালিত। বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের সহসভাপতি এড. শওকত হোসেন, আব্দুল হান্নান রানা, ড. রেজাউল করিম চৌধুরী, মোছলেম উদ্দিন চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড. ফয়জুল ইসলাম, মোহাম্মদ কাশেম, দপ্তর সম্পাদক সেলিম সাজ্জাদ, মহানগর কৃষক লীগের যুগ্ম আহবায়ক মোস্তাফা আনোয়রুল ইসলাম, সৈয়দ কামাল উদ্দিন, মোঃ শেখ ফরিদ, নুরু মোস্তাফা, আব্দুল মান্নাত তালুকদার, এস.এম শাহ আলম, নুরুল আমীন, আনোয়ার হোসেন, আবুল খায়ের প্রমুখ।


আরোও সংবাদ