বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ! কিন্তু শেষটাও যে ভালো হলো না

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১ এপ্রিল , ২০১৪ সময় ০৭:৪২ অপরাহ্ণ

শেষ, বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ! কিন্তু শেষটাও যে ভালো হলো না বাংলাদেশের। মিরপুরে অস্ট্রেলিয়ার কাছে আজ ৭ উইকেটে হারের পর পরাজয়ের যাতনাটা দীর্ঘায়িতই হলো। দিনের পর দিন এমন পরাজয়ের সান্ত্বনা কি? গত কয়েক মাসে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পারফরম্যান্সে রবি ঠাকুরের গানটাই যেন বারবার বাজে মনে—‘বড় বেদনার মতো বেজেছো তুমি হে আমার প্রাণে…।’
বাংলাদেশের দেওয়া ১৫৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে অস্ট্রেলিয়া ১১.১ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়েই তোলে ৯৮। প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন আল আমিন হোসেন। এ ডানহাতি পেসারের বলে বোল্ড হয়ে ডেভিড ওয়ার্নার ফিরেছেন ৪৮ করে। ওয়ার্নার ফিরলেও বাংলাদেশের আশা ‘খুন’ করতে উইকেটে ছিলেন ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত সংস্করণে এ সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান অ্যারন ফিঞ্চ। আল আমিনের বলে ফেরার আগে করলেন ৪৫ বলে ৭১। অভিষিক্ত বোলার তাসকিনের বোলিং অবশ্য মন্দ হয়নি। ৪ ওভারে বল করে ২৪ রান দিয়ে পেলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের উইকেটটি। উইকেট প্রাপ্তির দিক দিয়ে সবচেয়ে সফল আল আমিন, পেয়েছেন দুটি উইকেট। এ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল আল আমিনই, নিয়েছেন ১০ উইকেট।
প্রথম আলোকে দেওয়া আজ সাকিব আল হাসানের একান্ত সাক্ষাত্কার নিয়ে চারিদিকে তুমুল হইচই। সাকিবের মন্তব্যে ইতিবাচক-নেতিবাচক আলোচনার-সমালোচনার ঝড় তো রয়েছেই, মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়াম অবধি তার রেশ পৌঁছে গেছে। সব সমালোচনার একটাই জবাব—পারফরম্যান্স। ব্যাট হাতে ভালোভাবেই তা দিয়েছেন দেশসেরা অলরাউন্ডার। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ছুঁয়েছেন ক্যারিয়ারের চতুর্থ টি-টোয়েন্টি ফিফটি। বলিঞ্জারের বলে ফেরার আগে করেছেন ৫২ বলে ৬৬। কিন্তু বল হাতে বড্ড বেশি উদার হয়ে গেলেন সাকিব। দিলেন ৩ ওভারে ৩৬, নেই কোনো উইকেট।

মিরপুরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করা বাংলাদেশ ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে শুরুতেই। ১২ রান তুলতেই ফিরে যান তামিম ইকবাল ও এনামুল হক। তবে সেটি সামলে ওঠে সাকিব-মুশফিকের ১১২ রানের তৃতীয় উইকেট জুটিতে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে যেকোনো দলের এটি তৃতীয় সেরা জুটি। এ ছাড়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এটিই বাংলাদেশের সেরা জুটি। এর আগের রেকর্ড ছিল ১০৯ রানের। আফতাব আহমেদ ও মোহম্মদ আশরাফুল ২০০৭ বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এ রান তুলেছিলেন।

ব্যাট হাতে গত কয়েক ম্যাচের তুলনায় আজ কিছুটা ভালো করেছিলেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। এই টুর্নামেন্টে এটিই বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর। তবে আজ শেষ কয়েকটি ওভারে বাংলাদেশের রান উঠেছে তুলনামূলক শ্লথগতিতে। শেষ ৫ ওভারে বাংলাদেশ তুলতে পেরেছে মাত্র ৩৭। উল্লিখিত ওভারগুলোয় চার এসেছে মাত্র ৩টি, তবে কোনো ছক্কা নেই। অস্ট্রেলিয়া যেভাবে উড়িয়ে দিল, তাতে আরও ২০-২৫ রান বেশি হলেও হয়তো খুব একটা লাভ হতো না তাতে ।