বাংলাদেশকে ‘বিপজ্জনক দল’-কোহলি

প্রকাশ:| রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৯:১১ অপরাহ্ণ

সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্নটা অবধারিতই ছিল। ভারতের অধিনায়ক পাল্টেছে। তবে উত্তর পাল্টাল না। বাংলাদেশকে এখন প্রতিপক্ষ হিসেবে কীভাবে দেখেন—সেই প্রশ্নের উত্তরে ভারতের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক বিরাট কোহলি বললেন, ‘ওয়ানডেতে বাংলাদেশ সব সময়ই বিপজ্জনক।’

কোহলির উত্তরে ক্রিকেটীয় কূটনীতি কতটা থাকল, কতটা নিজের মনের কথা, সেটা বলা কঠিন। তবে ‘বাংলাদেশকে সমীহ করছি’ কথাটা প্রতিপক্ষ অধিনায়কেরা বোধ হয় এখন আর শুধু ভদ্রতা করে বলেন না। সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সিরিজটা বাদ দিলে নিকট অতীতে অন্য রকম এক দল হয়ে ওঠার প্রতিশ্রুতির দেখাই মিলেছে বাংলাদেশের খেলায়। সর্বশেষ মুখোমুখি লড়াইটাতেও বাংলাদেশ হারিয়ে দিয়েছিল ভারতকে, এশিয়া কাপেই।

কোহলি তাই বলছেন, ‘যেকোনো দিনে তারা অঘটন ঘটিয়ে ফেলতে পারে যেকোনো দলের বিপক্ষে। ওদের বেশ কজন দুর্দান্ত ক্রিকেটারও আছে। তা ছাড়া নিজেদের মাঠে ওরা অনেকগুলো ওয়ানডে ম্যাচও খেলেছে। নিজেদের উইকেট আর কন্ডিশন ওরা ভালো করেই চেনে। ওদের স্পিনারদের সামলানোও কঠিন। তবে আমরা আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ীই খেলব। বাংলাদেশের মতো দলকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। ওদের এমন কিছু খেলোয়াড় আছে যারা কঠিন পরিস্থিতি থেকে ম্যাচ বের করে আনতে পারে। ওরা অতীতে আমাদের বেশ কবার হারিয়েও দিয়েছে।’

তাঁকেই ভবিষ্যতের ভারত অধিনায়ক ভাবা হয়। সেটি অনেক দিন ধরেই। ধোনির অনুপস্থিতিতে কোহলির জন্য দারুণ একটা সুযোগ এসে গেল ষষ্ঠবারের মতো ভারতকে এশিয়া কাপ জেতানোর। কীভাবে দেখছেন হঠাত্ পেয়ে যাওয়া এই নেতৃত্বকে? কোহলির জবাব, ‘এর আগে আটটার মতো ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছি। এর আগে সবকিছু তো ভালোয় ভালোয় হয়েছে। তবে এটা বড় টুর্নামেন্ট। অবশ্য আমি এই চ্যালেঞ্জের জন্য প্রস্তুত।’

ভবিষ্যতের অধিনায়কত্বের ব্যাপারে তাঁর বক্তব্য, ‘এটা নিয়ে বেশ কথাবার্তা হচ্ছে। তবে আমি এ নিয়ে ভাবছি না। আমাকে আপাতত কেবল এই টুর্নামেন্টের জন্যই দায়িত্বটা দেওয়া হয়েছে। নিজেকে অনেক দায়িত্বশীল মনে হচ্ছে। তবে আমার মনে হয় না, খেলাটার ব্যাপারে আমার যে দৃষ্টিভঙ্গি, সেটা পাল্টানোর খুব একটা প্রয়োজন আছে।’

গতবার বাংলাদেশের কাছে হেরে বিদায়। এবারও ভারত টুর্নামেন্টটা খেলতে এসেছে টানা দুটো বিদেশ সফরে ব্যর্থতায় নতজানু হয়ে। এশিয়া কাপ জিতেই সেই ব্যর্থতার বৃত্ত ভাঙতে চান কোহলি, ‘আমরা এখানে টুর্নামেন্টটা জিততেই এসেছি। আমরা এখানে এক ম্যাচ খেলে বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য আসিনি। এটা আমাদের লক্ষ্য নয়। আমাদের লক্ষ্য যতগুলো ম্যাচ খেলব এর প্রত্যেকটাই জেতা।’

আরেকটা প্রশ্ন তাঁর দিকে ধেয়ে যাওয়াও যেন ছিল অবধারিত। সুদর্শন কোহলি ভারতের গ্ল্যামার জগতেও বেশ সাড়া ফেলেছেন। চুটিয়ে বিজ্ঞাপন-টিজ্ঞাপনও করছেন। এর সঙ্গে আছে বলিউডের এক তারকার সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জনও। তবে কোহলির জবাব, নিজের পুরো মনোযোগ তিনি ক্রিকেটেই ধরে রাখেন। বললেন, ‘আমার একমাত্র দায়িত্ব হলো শতভাগ ক্রিকেট খেলা, নিজের চুলের নতুন স্টাইল দেখিয়ে বেড়ানো নয়।’