বন্দর -পতেঙ্গা ইপিজেড যানযট রোধে ১৩দফা

প্রকাশ:| শনিবার, ৮ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ১১:০০ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
নগরীর বন্দর -পতেঙ্গা ইপিজেড হালিশহর এলাকার দীর্ঘদিন যাবত যানযটের কবল থেকে মুক্তির দাবিতে পতেঙ্গা -হালিশহর নাগরিক পরিষদের ব্যানারে ৮ এপ্রিল শনিবার সকাল থেকে স্কুেলর শতশত ছাত্র-ছাত্রী ,শিক্ষক শিক্ষীকা ,অভিভাবক এবং সর্বস্তরের জনতা বিশাল মানব বন্দনে স্বক্রিয় অংশ নিতে দেখা গেছে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ যে, বন্দর -পতেঙ্গা ইপিজেড হালিশহর বাসী দীর্ঘদিন যাবত যানযটে অসুস্থ্য হয়ে এবং বিভিন্ন গুরুত্ব পূর্নকাজে যাওয়া থেকে বঞ্চিত এবং শহর থেকে অনেকটাই বিচ্ছন্ন বলেও জানান।থাই সরকার বাহাদুর সাহেবকে জানানোর জন্যই এলকাবাসী এই ব্যতিক্রম কর্মসূচি পালন করেছে।
পতেঙ্গা -হালিশহর নাগরিক পরিষদের সরকারের কাছে তাদের যে ১৩টি দাবি দেন তা হলো-সকাল ৭টা-৯টা পর্যন্ত কন্টেইনার,টেইলার,কার্ভাভ্যান চলাছল বন্ধকরন,নৌ বাহিনী(ঈসা খা ঘাটির) পাশে নিউ মুরিং উন্মুক্ত সড়ক টি চালু করণ, শহরের ফিরিঙ্গীবাজার দিয়ে ১৫নং পতেঙ্গা দিয়ে ওয়াটার বাস চালু করন,বন্দরের লেবার কলোনী রোডটি উন্মুক্ত সড়ক টি চালু করা,সিমেন্ট ক্রসিং দিয়ে বড় পুল পর্যন্ত নব-তৈরি সড়ক টি পূর্নদমে চালু / খুলে দেয়া,ইপিজেডও সল্ট গোলা ক্রসিং মোড়ে আধুনিক ট্রফিক ব্যবস্থা সৃষ্টি করা,নিমতলা থেকে কাঠগড় পর্যন্ত গনপরিবহন চালু করা, নির্ধারিত স্থান দিয়ে ফ্লাইওভার/ ওভারপাস নির্মান করা,রাস্তার উপর াবধ ডাস্টবিন সরানো,যত্র থত্রগাড়ী পাকিং বন্ধকরা. সকল ইপিজেড কারখানার ছুটির সময় ভিন্নতা করা,স্টপিজ কিছুটা দক্ষিনে সরানো।
এছাড়া দুটি দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনায় পতেঙ্গা ইপিজেড এলাকাতে কন্টেইনার ডিপো সরানো এবং শহর থেকে ইপিজেড মুখি যাত্রঅ বাহী ট্রেন সার্ভিস চালু করলে এই অসহনীয় যান যট কমতে পারে বলে মত প্রকাশ করেন।
কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বন্দর টিলা বাজার সমিতির সভাপতি নুরুল আলম সওঃ সেক্রেটারী জাহেদ আনসারী, শাহপ্লাজা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ শাহজাহান সাজু ,সেক্রেটারী মিঠুন, পতেঙ্গা -হালিশহর নাগরিক পরিষদের সমন্বয়কারী রফিকুল হাসান,নুর মোহাম্মদ, ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রতিনিধি মোঃ শাহবুদ্দিন,ব্যবসায়ী সাইফুর রহমান মিন্টু,জসিম উদ্দিন,আরমান,আলমগীর।
কাঠগরে পতেঙ্গা -হালিশহর নাগরিক পরিষদের আহবায়ক এডঃ জানে আলম ও বরকত উল্লাহ ফসিউল আলমের এর নেতৃত্বে মানববন্ধন,হাসপাতাল গেইট প্রধান শিক্ষক মোঃইসমাইল হোসেনের নেতৃত্বে দক্ষিন হালিশহর স্কুলের সমানে,সিমেন্ট ক্রসিং এমবিশন স্কুল,ইপিজেড এলাকায় উপক’ল মানবাধিকার সংস্থা,সল্টগোলা ক্রসিং মোড়ে ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দরা এবং স্টীল মিলবাজার এলাকায় পতেঙ্গা -হালিশহর নাগরিক পরিষদের সদস্য পপি চাকমা ও পূরবী দাশের নেতৃত্বে বিশাল মানববন্দন কর্মসূচি পালন সহ মোট ১৭টি স্পটে এই কর্মসূচি করেন বলে সমন্বয়কারী রফিকুল হাসান সংবাদ মাধ্যম কে জানান।


আরোও সংবাদ