`বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতকারীদের ক্ষমা নেই`

প্রকাশ:| সোমবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ১০:০৪ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, বাঙালি জাতিসত্তা, সংবিধান এবং মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে যে-ই অবমানন করুক না কেন তাকে আইনের আওতায় বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। এম এ লতিফ চট্টগ্রাম বন্দরকে মাফিয়া চক্রের হাতে তুলে দিয়েছেন। তিনি কখনো বাংলাদেশের কেউ নন। তাকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে হবে।96859

আজ বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছঅত্র বিকৃত করে তাঁকে পাকিস্তানী পোশাকে ভূষিত করার প্রতিবাদে সাংসদ এম.এ লতিফের বিরুদ্ধে নাগরিক মঞ্চ চট্টগ্রাম আয়োজিত লালদিঘী ময়দানে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরকে কেন্দ্র করে সকল অপকর্মের খলনায়ক এম এ লতিফ। তিনি চট্টগ্রামের আওয়ামী রাজনীতির বর্ণচোরা দুষ্ট জন তার পক্ষে দলের কিছু লোক অবস্থান নিলেও তারা জাতির বিবেকের আদালতে একদিন অবশ্যই দায়ী হবেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের রাজনীতির আদর্শিক পিতা। তাঁকে অবমাননা ও কুটুক্তি কখনো সহ্য করা হবে না। তবে সহ্যেরও সীমা আছে। এই সীমা অতিক্রম করলে বাংলার জনগণ সমুচিত জবাব দেবে।

586চট্টগ্রাম নাগরিক মঞ্চের আহ্বায়ক এ.কে.এম বেলায়েত হোসেসের সভাপতিত্বে ও বিশিষ্ট রাজনীতিক শফিক আদনানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট রাজনীতিক আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন, ১৪ দলের পক্ষে ন্যাপ মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আলী আহমেদ নাজীর, ব্যাবসায়ীদের পক্ষে সিন্ড এক এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আলতাফ হোসেন বাচ্চু, গণতন্ত্র পার্টির তাজের মল্লুক, গণ আজাদী লীগের মাওলানা নজরুল ইসলাম আশরাফী, সাম্যবাদী দলের অমুল্য বড়–য়া, তরিকত ফেডারেশনের আহসানুল মোর্শেদ কাদেরী, জাতীয় পার্টির আজাদ দোভাষ, নারী নেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, সাবেক কাউন্সিলর বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষে মোহাম্মদ ইউনুছ, পেশাজীবীদের পক্ষে জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুন চৌধুরী, কাউন্সিলরদের পক্ষে পাঁচলাইশ ওয়ার্ড কাউন্সিলর কফিল উদ্দিন খান, ২৩নং পাঠানুটুলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাবেদ, হাজী বেলাল আহমদ, সংবর্ধিহত মহিলা কাউন্সিলর নীলু নাগ, শ্রমিক সমাজের পক্ষে কাজী মাহবুবুল হক চৌধুরী এটলী, যুব সমাজের পক্ষে আলহাজ্ব মহিউদ্দিন বাচ্চু, শ্রমিক নেতা মীর নওশাদ আহমেদ ছাত্র সমাজের পক্ষে ইমরান আহমেদ ইমু। সমাবেশ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী ও রাজনীতিক এডভোকেট সুনীল সরকার, আলহাজ্ব বদিউল আলম, হাসান মাহমুদ চৌধুরী শমসের, আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম ফারুক, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, আবু তাহের, হাজী জহুর আহমদ, আবদুল আহাদ, জহরলাল হাজারী, এম.এ জাফর, নুরুল আবছার মিয়া, নজরুল ইসলাম বাহাদুর, আলহাজ্ব গাজী শফিউল আজিম, হাজী মোহাম্মদ ইয়াকুব, অমল মিত্র, আলহাজ্ব ফিরোজ আহমদ, আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর চৌধুরী সিইনসি স্পেশাল, আবু তাহের মেম্বার, এ. এস এম ইসলাম, আলহাজ্ব সিদ্দিক আল, হাজী ইফরান আলী, আলমগীর কবির, স্বপন সেন, মিটুল দাশগুপ্ত, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফফর আহমদ. দেলোয়ার হোসেন খোকা, ফরিদ মাহমুদ, মাহবুবুল হক সুমন, কাউন্সিলর সলিম উল্লাহ বাচ্চু, আশরাফুল আলম, মোবারক আলী, ছাত্রলীগের নুরুল আজিম রনি।