বঙ্গবন্ধুর আর্দশ বাস্তবায়ন করে তার হত্যার প্রতিশোধ নিতে হবে

প্রকাশ:| শনিবার, ২৩ আগস্ট , ২০১৪ সময় ১০:৫৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় আ জ ম নাছির

আ জ ম নাছিরচট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেছেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর আর্দশ বাস্তবায়ন করে তার হত্যার প্রতিশোধ নিতে হবে। তিনি বলেন, হায়েনার দল ১৯৭৫ এর পর রাষ্ট্রীয় আনুকূল্যে লালিত পালিত হওয়ার কারণে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের উত্থান ঘটেছে। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ সুকৌশলে দমন করে দেশকে উন্নতি ও সমৃদ্ধির দিকে পৌছে দিচ্ছে। তিনি জাতির জনক এর আদর্শে ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মানে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। ২৩ আগষ্ট ২০১৪খ্রি: শনিবার বিকেলে নগরীর জামাল খানস্থ চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষনে এসব কথা বলেন।
সংগঠনের সহ-সভাপতি সাবেক কমিশনার আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলোয়াত, মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতা ও ১৯৭৫ সনে সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত, দেশ ও জাতির উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডীন প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন। আলোচনা করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচ্য বিভাগের প্রফেসর ড. জিনুবোধী ভিক্ষু, টিভি জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সাহাবুদ্দিন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অনুপ বিশ্বাস, কবি জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা স্মৃতি পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন হিরু, মো. সেলিম, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য রেজাউল করিম খন্দকার বুলবুল, মো. শাহ আলম, সরফুদ্দিন চৌধুরী রাজু,
শ ম জিয়াউর রহমান, জাবেদুল ইসলাম শিপন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল মামুন, হাবিবুর রহমান তারেক, নজুরুল ইসলাম মিন্টু, মো. সেলিম, আসিফ ইকবাল, আবু সুফিয়ান, পঞ্চানন চৌধুরী, ডা. আর কে রুবেল, খোরশেদ আলম, বোরহান উদ্দিন গিফারী, মোজাম্মেল হক, সাখাওয়াত হোসেন সওকত, ডা. বরুন কুমার বলাই, ডা. মাহমুদুল হাসান, মো. আলফাজ, সাইদুল ইসলাম সজীব ও আবদুল মোতালেব রানা সহ অন্যরা।
অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডীন প্রফেসর ড. গাজী সালেহ উদ্দিন বলেন, বঙ্গবন্ধুর ৭মার্চের ভাষন পৃথিবীর সেরা ভাষন। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বাঙালির শ্রেষ্ঠ সন্তান। বঙ্গবন্ধু এ দেশের মাটি ও মানুষের নেতা। বঙ্গবন্ধুকে শারীরিক ভাবে হত্যা করা হলেও তার আদর্শকে মুছে ফেলা সম্ভব নয়। বঙ্গবন্ধু চিরদিন বাঙালির হৃদয়ে ও মনের মনিকোটায় জাগরুক থাকবে।


আরোও সংবাদ