বগুড়া জিলা স্কুলের ৪ ছাত্রসহ ৫ জন গ্রেফতার

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৬ জুন , ২০১৫ সময় ০৯:৩১ অপরাহ্ণ

স্কুলের মূল্যবান সামগ্রী চুরির অভিযোগে বগুড়া জিলা স্কুলের ৪ জন ছাত্রসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের হেফাজত থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন সময়ে চুরি হওয়া ৫ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- শহরের মালতিনগরের সহিদুজ্জামানের ছেলে হোসাইন আহম্মেদ সেফিন, ফুলতলা এলাকার হুমায়ুন কবীর খানের ছেলে রেজওয়ান খান, শাহ মো: লিয়াকত আলীর ছেলে শাহ মো: ফাইম, জলেশ্বরীতলার আব্দুল হান্নানের ছেলে সেরাজুল মনির রুপক। এরা সবাই বগুড়া জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র।

অপর একজন রাফিউর রহমান রাফি (১৭) শাজাহানুর উপজেলার পারতেখুর গ্রামের সাজ্জাদুর হোসেন সাজুর ছেলে। সে আদমদীঘি উপজেলায় একটি স্কুলের ছাত্র।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া জিলা স্কুলের কেয়ারকেটার বেল্লাল হোসেন স্কাউট ভবনের একটি কক্ষে জানালা দিয়ে ভিতরে একজনকে মালামাল চুরি করতে দেখে সঙ্গে সঙ্গে সে দরজা বন্ধ করে রাফিউর রহমান রাফি নামের এক ছেলেকে আটক করে। পরে তাকে সদর থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। রাতে পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে বেরিয়ে আসে চাঞ্চল্যকর অনেক তথ্যসহ জড়িতদের নাম পরিচয়।

পরবর্তীতে পুলিশ রাতভর রাফিকে নিয়ে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করে জিলা স্কুলের আরো ৪ ছাত্রকে। তাদের হেফাজত থেকে উদ্ধার করা হয় স্কুলের বিজ্ঞানাগার থেকে বিভিন্ন সময়ে চুরি করা সরঞ্জাম। যার আনুমানিক মুল্য ৫ লক্ষাধিক টাকা বলে পুলিশ জানিয়েছে।

বগুড়া সদর থানার এসআই আসলাম আলী জানান, গ্রেফতারকৃতরা পুলিশের কাছে অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। এর মধ্যে ওই স্কুলের একজন ছাত্রকে অপহরণ করে মোটা অঙ্কের টাকা মুক্তিপণ আদায়ের পরিকল্পনা ছিল। এছাড়াও শহরের জলেশ্বরীতলা এলাকায় একটি মোবাইল ফোনের শো-রুমে চুরি করার পরিকল্পনাও করেছিল তারা। স্কুলের সরঞ্জাম চুরি ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে স্কুল থেকে মোবাইল ফোন এবং স্কুল সংলগ্ন আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠ থেকে একাধিক মোবাইল ফোন ছিনতাই এর কথা স্বীকার করেছে তারা।

তিনি আরও জানান, স্কুল পরিচালনা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।


আরোও সংবাদ