ফেসবুকে ক্ষমা চাইলেন সাকিব

প্রকাশ:| শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:০৯ অপরাহ্ণ

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ চলাকালে ড্রেসিংরুমে টেলিভিশন ক্যামেরার সামনে অশোভন আচরণ করায় সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাকিব আল হাসান।ফেসবুকে ক্ষমা চাইলেন সাকিব

শুক্রবার দিবাগত রাতে সাকিব আল হাসান তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ বিষয়ে লিখেছেন, “আমার এবং আমাদের প্রিয় ক্রিকেট দলের সমর্থকরা, গতকালের ম্যাচে আমার আচরণের জন্য আমি ভীষণ দুঃখিত। হঠাৎ আউট হয়ে যাওয়ায় আমি ভীষণ ভেঙে পড়েছিলাম। আমি আবেগ সামলাতে পারিনি। অনেকে আমাকে আদর্শ মনে করেন। ফলে এভাবে প্রতিক্রিয়া প্রকাশ না করাই উচিত ছিল। বিসিবি, সতীর্থ, সমর্থক এবং সকল বাংলাদেশির কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি। আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করব যাতে ভবিষ্যতে এমনটা না হয়। টাইগাররা এগিয়ে যাও!—সাকিব আল হাসান”

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ চলাকালে ড্রেসিংরুমে সাকিবের ওই আশোভন আচরণের পর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে সাকিবের এ ঘটনার ভিডিও ফুটেজ শেয়ার হচ্ছে একের পর এক। সমালোচনামুখর হয়ে পড়েছেন মানুষ।

তার ওই কদর্যভঙ্গি এতটাই স্পর্শকাতর ছিল যে, দেশ এবং দেশের বাইরে কোটি কোটি ক্রিকেটভক্তকে তা আঘাত করে। বাইশ গজে কীর্তি তার যতই ঐশ্বর্যভরা থাকুক, বিশ্বক্রিকেট তাকে যতই ‘আদর্শ দূত’ ঘোষণা করুক, সাকিবের ওই আচরণ বরদাশত করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। আর তাই সিরিজের মাঝেই শুক্রবার সন্ধ্যায় তাকে শুনানিতে ডেকে তিন ম্যাচ সাসপেন্ড আর তিন লাখ টাকা জরিমানা করে বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা পর্ষদ। শুনানিতে সাকিব পুরো ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।

দেশীয় ক্রিকেটে এমন ঘটনা এটাই প্রথম। এর আগে কোনো ক্রিকেটারকেই শৃঙ্খলাভঙ্গের কারণে একসঙ্গে এত ম্যাচ এবং এত টাকা জরিমানা করা হয়নি। যদিও সাকিবের ব্যাপারে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ায় সন্তুষ্ট সাবেক ক্রিকেটাররা। তারা মনে করেন, ক্রিকেটকে লজ্জায় ফেলানো যে-ই হোক না কেন, তাকে শাস্তি পেতেই হবে।