‘ফুড সাপ্লিমেন্ট’ সংক্রান্ত ৭টি ভ্রান্ত ধারণা

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ৯ মার্চ , ২০১৮ সময় ১১:২৭ অপরাহ্ণ

প্রতিদিনের ডায়েটে পুষ্টির হার বৃদ্ধি করতে অনেকেই ফুড সাপ্লিমেন্ট নিয়ে থাকেন। কিন্তু সবসময় যে ঠিকঠাক রিসার্চ করে সাপ্লিমেন্ট বাছা হয়, তা নয়! স্রেফ লোকমুখে শুনে, বা আন্দাজের ওপর ভর করে অনেকেই ভুল সাপ্লিমেন্ট নিয়ে ফেলেন। আর এতে হিতে বিপরীত হয়। ফুড সাপ্লিমেন্ট ঘিরে মানুষের মধ্যে অনেক ভ্রান্ত ধারণাও রয়েছে। জেনে নেওয়া যাক, কি সেই সব ধারণা-

১) সাপ্লিমেন্ট এক ধরণের ওষুধ-

সাপ্লিমেন্ট কখনওই অ্যালোপ্যাথিকের বিকল্প হতে পারে না, কারণ এর মধ্যে রোগ প্রতিরোধের কোনও ক্ষমতা নেই।

২) শরীরের প্রয়োজনীয় পুষ্টির চাহিদা মেটাতে সাপ্লিমেন্ট একাই যথেষ্ট-

ভুল ধারণা। ঠিকঠাক স্বাস্থ্য বজায় রাখতে প্রথমেই দরকার সঠিক ডায়েট ও নিয়মিত যোগ ব্যায়াম।

৩) সবার ক্ষেত্রে ডায়েটারি সাপ্লিমেন্ট’র ফল এক হবে-

সাপ্লিমেন্ট’র কার্যকারীতা অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। যেমন-মান, পরিমাণ, কখন এবং কীভাবে খাওয়া হচ্ছে। তা ছাড়া, সব মানুষের শরীর একই হারে পুষ্টি শোষন করতে পারে না। কাজেই, প্রতিটা মানুষের ক্ষেত্রে ডায়েটারি সাপ্লিমেন্ট’র ফল আলাদা হবে।

৪)সাপ্লিমেন্টের মধ্যে স্টেরয়েড মেশানো থাকে-

স্টেরয়েড এক ধরনের ওষুধ। সাধারণত মাংস পেশির সমস্যা দূর করতে ব্যবহার করা হয়। কিন্তু সাপ্লিমেন্ট খাওয়া হয় পুষ্টির হার বাড়াতে। কাজেই, সাপ্লিমেন্ট’র মধ্যে কখনওই স্টেরয়েড মেশানো থাকে না। ঠিকঠাক দোকান থেকে কিনলে সাপ্লিমেন্ট নিরাপদ।

৫) শুধুমাত্র ওয়ে প্রোটিন পেশির গঠন উন্নত করে-

ওয়ে প্রোটিনের থেকে ভাল ফল দেয় প্লান্ট প্রোটিন।

৬) একবার সাপ্লিমেন্ট খেলে, সারা জীবন ভাল স্বাস্থ্য বজায় থাকবে-

কখনোই নয়। ভাল স্বাস্থের জন্য শরীরে নিয়মিত পুষ্টির জোগান প্রয়োজন। সঙ্গে অবশ্যই যোগ ব্যায়াম।

৭) জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের সাপ্লিমেন্ট কখনও নকল হতে পারে না-

জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের সাপ্লিমেন্ট-এর নকলও কিন্তু বাজারে মেলে। কাজেই শুধুমাত্র নির্ভরযোগ্য দোকান থেকেই সাপ্লিমেন্ট কিনুন।