ফিফা বেশ কিছু সংস্কার পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৬ সময় ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

ফুটবলে দুর্নীতি ঠেকাতে এবং স্বচ্ছতা বাড়াতে বিশ্ব ফুটবলের পরিচালনাকারী সংস্থা- ফিফা বেশ কিছু সংস্কার পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে।

সংস্থাটির প্রেসিডেন্টসহ নির্বাচিত কর্মকর্তারা সর্বোচ্চ কতো মেয়াদে ক্ষমতায় থাকতে পারবেন তার সময়সীমাও বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

দুর্নীতির অভিযোগে ফিফার প্রধান সেপ ব্লাটার সরে যাওয়ার পর সংস্থাটি আজ শুক্রবার তার নতুন প্রেসিডেন্টও নির্বাচন করতে যাচ্ছে।

গত বছর দুর্নীতির অভিযোগে সেপ ব্ল্যাটারকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়াতে হয়- ওই পদে তিনি ছিলেন একনাগাড়ে ১৯৯৮ সাল থেকে।

জুরিখে ফিফার নজিরবিহীন এক সভায় এই সংস্কারগুলোর ব্যাপারে ঐকমত্য হয়েছে।

যেসব সংস্কারে সদস্য দেশগুলো একমত হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে প্রেসিডেন্টসহ নির্বাচিত সব সদস্যের মেয়াদ বেঁধে দেওয়ার বিষয়টি।

এতে বলা হয়েছে প্রেসিডেন্ট শুধু চারবছর মেয়াদে ক্ষমতায় থাকতে পারবেন। তার ভূমিকা হবে সংস্থার দূত হিসাবে কাজ করার। আর্থিক ও বাণিজ্যিক সব সিদ্ধান্ত নিয়ন্ত্রণ করা হবে মহাসচিবের দপ্তর থেকে।

শুক্রবার আরও পরে ফিফা তার নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে।

বর্তমানে ফিফার যে নির্বাহী কমিটি আছে তার স্থলাভিষিক্ত হবে নতুন একটি প্রশাসনিক কাউন্সিল যাতে নূন্যতম ছয়জন মহিলা সদস্যকে নির্বাচন করতে হবে –অর্থাৎ প্রত্যেক ফুটবল ফেডারেশন থেকে একজন করে মহিলা সদস্য নিতে হবে।

প্রেসিডেন্ট, মহাসচিব, কাউন্সিল সদস্যসহ নির্বাচিত শীর্ষ কর্মকর্তাদের প্রতিবছর তাদের আয় জানাতে হবে।

এসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে সংস্থার স্বচ্ছ্বতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে, তবে সমালোচকরা বলছেন এসব পদক্ষেপ এখনও যথেষ্ট নয়।

শুক্রবার আরো পরের দিকে ফিফা নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করবে।

গত বছর দুর্নীতির অভিযোগে সেপ ব্ল্যাটারকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়াতে হয়- ওই পদে তিনি ছিলেন একনাগাড়ে ১৯৯৮ সাল থেকে।

এই পদের জন্য যে ৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তাদের মধ্যে যে দুজনের জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা সবেচয়ে বেশি তারা হলেন বাহারাইনের শেখ সালমান- যিনি এশীয় ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি এবং সুইস আইনজীবী ইউএফার জিয়ানি ইনফানতিনো।