ফটিকছড়ি ছাত্রলীগের সভাপতি পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে জামাল

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| রবিবার, ২৮ জানুয়ারি , ২০১৮ সময় ১২:১১ পূর্বাহ্ণ

শওকত হোসেন করিম,ফটিকছড়ি:
চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলন গত শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হলেও হয়নি সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন কাউন্সিল অধিবেশন। এ সম্মেলনের পর সৃষ্টি হয়েছে নতুন জল্পনা কল্পনার। কে হচ্ছে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি। রাজনীতির ময়দান এখন সরব, বিভিন্ন প্রার্থী চালাচ্ছে ব্যাপক প্রচার ও প্রচারনা, নিজের পক্ষে দোয়া ও সমর্থনের আশায় যাচ্ছে উপজেলার আওয়ামী দলীয় বিভিন্ন নেতা কর্মীদের দারে দারে। উপজেলা আব্দুল্লাহপুর হতে বাগান বাজার, সুয়াবিল হতে কাঞ্চননগর এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সভাপতি প্রার্থী হিসেবে সাধারন ছাত্র-ছাত্রী, নেতা-কর্মী ও জন সাধারনের মধ্যে মো: জামাল উদ্দিন ব্যাপক আলোচিত এবং সকলে মনে করে সভাপতি হিসেবে জামাল একমাত্র যোগ্য প্রার্থী। জামাল ফটিকছড়ি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি। তিনি স্কুল জীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে স্বক্রিয়ভাবে জড়িয়ে পড়েন।
জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে বিগত বি.এন.পি জামাত সরকারের আমলে ছাত্রলীগের রাজনীতি ও জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম বাস্তবায়ন করতে গিয়ে একাধীকবার হামলার শিকার হয়েছে। জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করার লক্ষে বিএনপি, জামাত-শিবিরের বিরুদ্ধে ফটিকছড়িতে গড়ে তোলেন দূর্বার আন্দোলন। আন্দোলনের কর্মসূচী হিসেবে রাস্তাঘাট অবরোধ ও হরতাল সহ জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত সকল কর্মসূচী সামনে থেকে পালন করেন।
২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগকে বিজয়ী করার লক্ষে অক্লান্ত পরিশ্রম করেন। বিগত ৫ই জানুয়ারির জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থীকে বিজয়ী করার লক্ষে দলীয় আদেশে কাজ করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের এক প্রভাবশালী নেতা বলেন সৎ, বিনয়ী, মেধাবী ও যোগ্যতার ভীত্তিতে দলীয় স্বার্থে মো: জামাল উদ্দিন একমাত্র সভাপতি হিসেবে যোগ্য প্রার্থী।
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যায়ের বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী জানান, সৎ, নিষ্টাবান, পরিচ্ছন্ন, মেধাবী ও কর্মীবান্ধব ছাত্রনেতা জামাল ভাই সভাপতি প্রার্থী হওয়ার কথা শুনে তূণমূলে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। তারা আরো বলেন, আর যারা ত্যাগ করতে জানে তাদের কোন পদ পদবি লাগে না। কেননা তারা ত্যাগকে হাসি মুখে বরণ করতে জানে। আলোকে কখনো লুকিয়ে রাখা যায় না, অন্ধকার চূর্ন করে সে উদ্ভাসিত হবেই।
অনেক সাবেক ছাত্রনেতাদের মতে জামাল একজন ত্যাগী নেতা, নিরন্তর যুদ্ধে জয়ী হওয়ার জন্য শত বাধা-বিপত্তি ও দুঃখ-কষ্ট পেরিয়ে ছাত্রলীগকে আগামীর দিকে অগ্রসর করেছে।
ছাত্রনেতা মো: জামাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জনতার নিঃশ্বাসকে বলেন, দল যদি আমাকে ছাত্রলীগের সভাপতি মনোনীত করেন তাহলে ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগকে জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে মাদক, সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত একটি ডিজিটাল ও মডেল ছাত্রলীগে রুপান্তরিত করবো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নের লক্ষে সকলের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলেয়ে কাজ করে যাবো।