ফটিকছড়ি কলেজের গাড়ীতে হামলাকারীদের শাস্তি দাবী

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ১১:৫৪ অপরাহ্ণ

শওকত হোসেন করিম, ফটিকছড়ি॥
ফটিকছড়ি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষা সফরের গাড়িতে অতর্কিত হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। ১৬ ফেব্র“য়ারী বিকাল সাড়ে ৫ টা কলেজের প্রশাসনিক ভবনে এই সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে কলেজের উপাধ্যক্ষ মো. মনিরুজ্জামান লিখিত বক্তব্য পাঠ কালে বলেন গত ১৫ ফেব্র“য়ারী কলেজের বার্ষিক শিক্ষা সফরে প্রায় সাড়ে ৪শত ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে বান্দরবান গিয়ে ছিলেন। সেখান হতে ফিরছিলাম সন্ধ্যার পর চট্টগ্রাম-কক্্রবাজার সড়কের কেরানীহাট সাতকানিয়া এলাকায় আসলে কয়েকজন মোটর সাইকেল চালক ও আরোহী আমাদের গাড়ী বহরের সামনে পেছনে হরণ দিয়ে বিরক্ত করতে থাকে । এসব হতে আমরা তাদেরকে বিরত থাকতে বলি। এসময় তারা ক্ষেপে গিয়ে চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া কলেজের সামনে মোটর সাইকেল যোগে বেশ কিছু বখাটে ছেলে নিয়ে শিক্ষা সফরের গাড়ী গতিরোধ করে । হঠাৎ তারা এলোপাতাড়ী ভাবে শিক্ষা সফরের ৭টি বাস গাড়ি ভাংচুর করে। এক পর্যয়ে হমলাকারীরা লাঠি সোঠা ও দেশী তৈরি অস্ত্র নিয়ে শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের উপর বেধডক পিঠাতে থাকে। এসময় তারা শিক্ষা সফরের প্রায় ৪শত ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদেরকে উপর বর্বোরিচিত হামলা চালিয়ে শতাধীক মোবাইল সেট, ছাত্রীদের ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। তাৎক্ষনিক শিক্ষার্থীরা আতাংকিত হয়ে গাড়ীর জানালা বা গ্লাস বন্ধ করে জীবন রক্ষার চেষ্টা করে । কিন্তু শেষপর্যন্ত বখাটে ছেলেরা গাড়ীর জানালা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে ছাত্রীদের মোবাইল ও ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয় ও ইভটিজিং করে। এসব বখাটেদের হামলায় শিক্ষকসহ শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী আহত হয়। আহতদের মধ্যে শিক্ষক শেখ মো: আরাফাত, দিদারুল আলম কুতুব উদ্দিন ও ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে জামাল উদ্দিন,শাহী আরমান রিফাত,হৃদয়, রিন্টু,ঝিলু আকতার,জয়নাল,সোহেল চাকমা,সম্্রাট,জিকু চৌধুরী,নজরুল ,নাসির,তুহিন প্রমূখ। এদেরকে স্থানীয় প্রশাসন’র সহযোগিতায় উদ্ধার করে চন্দনাইশ বিজিসি ট্রাষ্ট মেডিকেল,পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও চমেক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কলেজের অধ্যাপক মুহাম্মদ আজাদ উদ্দিন,মো. ফিরোজ আলম,মো. শেখ আরাফাত,মো. দিদারুল আলম, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহেদুল আলম শাহেদ,কলেজ ছাত্রীগের সভাপতি মো. জামাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাদেক আলী সিকদার শুভ ও পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ মুহাম্মদ শোয়েব।
সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বখাটের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানানো হয়।


আরোও সংবাদ