‘‘ফজলুল হক সমাজকে আলোকিত করার পাশাপাশি তাঁর লেখনি পাঠকদের দেশাত্ববোধে উদ্বুদ্ধ করে’’

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শনিবার, ৮ সেপ্টেম্বর , ২০১৮ সময় ০১:০৬ অপরাহ্ণ

প্রফেসর ফজলুল হক দীর্ঘসময় ধরে শিক্ষকতার পেশায় থেকে সমাজকে আলোকিত করে যাচ্ছে। তার ছাত্ররা অনেকেই আজ রাষ্ট্র ও সমাজে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে । শিক্ষক হিসাবে ফজলুল হক সফল ও স্বার্থক। কারণ তিনি নিজেকে শুধু শিক্ষকের গন্ডিতে আবদ্ধ রাখেননি দেশাত্মবোধ, মানবতাবোধ ও সমাজ নিয়ে তার চিন্তার বিস্তার ঘটাতে তিনি কলম ধরেছেন, যে কলম দিয়ে তিনি সমাজ পরিবর্তনের অবিরাম সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। তিনি একজন মুক্ত চিন্তার লেখক। রাষ্ট্র ও সমাজের জন্য যাই ভালো মনে করেন তাই লেখেন। আর এরূপ লিখতে পারেন বলেই তিনি পাঠকের মানসে ঠাঁই করে নিয়েছেন। গত ৬ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকালে নগরীর প্রেসক্লাব ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে প্রফেসর ফজলুল হক জন্মদিন শুভেচ্ছা স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন একথাগুলো বলেন। প্রফেসর ফজলুল হক জন্মদিন উদ্যাপন পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত ৬৯তম জন্মদিন স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি প্রফেসর ফজলুল হককে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে সমাজের তার মত ব্যক্তিত্বের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন এবং তার দীর্ঘায়ু কামনা করেন। জন্মদিন উদ্যাপন পরিষদের আহবায়ক জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব আ.ফ.ম. মোদাচ্ছের আলীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্মারক অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রফেসর ফজলুল হককে জন্মদিন উদ্যাপন পরিষদের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়, পরে অতিথি ও সুধিবৃন্দ প্রফেসর ফজলুল হকের জন্মদিনের কেক কাটেন। এ জন্মদিন স্মারক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযুদ্ধকালীন যৌথ বাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় ডেপুটি কমান্ডার, সাবেক এমএনএ আবু ছালেহ। অতিথি ছিলেন, পোর্ট সিটি ইউনিভার্সিটির ডিন প্রফেসর ড. ফসিউল আলম, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. বশির আহমদ ও প্রফেসর ড. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, জন্মদিন উদযাপন পরিষদেন সদস্য অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল। স্যারকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. জিনোবোধি ভিক্ষু, দৈনিক পূর্বদেশের যুগ্ম সম্পাদক আবু তাহের মুহাম্মদ, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর এস. এম. সোহেল, কাউন্সিলর মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, দৈনিক আজাদীর সহযোগী সম্পাদক রাশেদ রউফ, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশের সহযোগী সম্পাদক কামরুল হাসান বাদল, বিএফইউজের সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, সিইইউজের সভাপতি নাজিমুদ্দিন শ্যামল, দৈনিক পূর্বকোণের সহকারী সম্পাদক আবছার মাহফুজ, শিক্ষাবিদ এফ মাহমুদুর রহমান, আলহাজ আবদুল কুদ্দুস, অধ্যাপক ড. মাসুম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা ও সাংস্কৃতিক সংগঠক দেওয়ান মাকসুদ আহমেদ, বঙ্গকন্ধু একাডেমি হালিশহরের আহবায়ক এজহারুল হক, হালিশহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইলিয়াছ, এস.এম.আবু তাহের, শিশু সাহিত্যিক এমরান চৌধুরী, রমজান আলী মামুন, সাঈদুল আরেফীন, আবুল কালাম বেলাল, শিক্ষাবিদ শামসুদ্দিন শিশির, লেখক মনসুর নাদিম, আবদুল হাই, ইঞ্জিনিয়ার মনিরুল আলম, আবদুল হাকিম নাহিদ, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম, সাহিত্য পাঠ চক্র চট্টগ্রামের আসিফ ইকবাল, মিউজিক্যাল ব্যান্ড এসোসিয়েশন চট্টগ্রামের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, রাজিব রাহুল, সমীরণ বড়–য়া প্রমূখ। অনুষ্ঠানে প্রফেসর ফজলুল হককে জন্মদিনের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান, দাঁড়িকমা প্রকাশনী, সাহিত্য পাঠচক্র চট্টগ্রাম, মুক্তিযুদ্ধ একাডেমি চট্টগ্রাম, বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্র, ঘাসের ডগায় শিশির সাহিত্য পরিষদ,ছড়াকার সংসদ চট্টগ্রাম, পুর্বাশার আলো, প্রত্যয় সাংস্কৃতিক সংঘ, ঐতিহ্য সাহিত্য পরিষদ, চট্টগ্রাম পোর্ট এজেন্ট স্টিভিডরস এন্ড কন্ট্রাক্টরস এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন, নিজে গড়ি, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খুরশেদ আলম সুজনের পক্ষে মোরশেদ আলম, চট্টগ্রাম সাহিত্য পরিষদ, তমাল বড়–য়া, স্বরূপ দত্ত রাজু, এডভোকেট সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন ও ব্যাক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানে জন্মদিন উপলক্ষে প্রকাশিত স্মারক ‘কান্ডারি’র মোড়ক উন্মাচন করেন অতিথিবৃন্দ।