আকাশ ভেঙে বৃষ্টি, সাথে মিষ্টি হাওয়া

প্রকাশ:| বুধবার, ১৮ অক্টোবর , ২০১৭ সময় ০৯:৩৯ অপরাহ্ণ

তীব্র রোদের জ্বালা জুড়াতে অনেককেই দেখা গেছে বৃষ্টিতে ভিজতে। অনেকদিন ধরেই বৃষ্টির দেখা নেই। মাথার ওপরও চলছিল ত্বকপোড়া রোদের দাপট। গরমে ভোগান্তিতে ছিলেন নগরবাসী। তবে অবশেষে দেখা মিলেছে বৃষ্টির।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) দুপুরে হঠাৎ আকাশ ভেঙে নামে বৃষ্টি। সঙ্গে ঠান্ডা হাওয়া। পাল্লা দিয়ে চলে ছোট ছোট বজ্রপাতও। বেলা বাড়তে বাড়তে বৃষ্টির প্রকোপ কিছুটা কমলেও ঝিরঝিরে বৃষ্টি জারি রয়েছে।

অথচ সকাল থেকেই আকাশ ছিল একেবারে পরিষ্কার, ঝকঝকে।

বৃষ্টিতে ঘর থেকে বের হওয়া মানুষ আর ঘর ফেরত শিক্ষার্থীরা কিছুটা ভোগান্তিতে পড়লেও প্রশান্তিটাকেই বড় করে দেখছেন তারা। আর যারা ঘরবন্দী ছিলেন তাদেরও কেউ কেউ ছুটেছেন ছাদে-উদ্দেশ্য বৃষ্টিবিলাস।

বেশ কয়েক দিন পরে নতুন করে ঠান্ডার আমেজ পেয়ে যেন রীতিমতো উৎফুল্ল শহরবাসী। হঠাৎ নামা এই বৃষ্টিতে যেন তাপমাত্রাও নেমে যায় খানিকটা।

এদিকে চট্টগ্রাম আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাসে আগামী আরও কয়েকদিন বৃষ্টিপাতের কথা বলা হয়েছে। বুধবার সকালের দিকে তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস দেখানো হলেও বৃষ্টির পর তা কমে এখন ৩৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে দাঁড়িয়েছে বলে দেখানো হয়েছে চট্টগ্রাম আবহাওয়া অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে।

চট্টগ্রাম আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ আব্দুল হান্নান বলেন, বেশ কিছুদিন পরে বৃষ্টি হয়েছে ।এক সপ্তাহ আগে একদিন রাতে বৃষ্টি নামলেও অনেকদিন ধরে বৃষ্টি হচ্ছিল না।

তিনি বলেন, মধ্য বঙ্গোপসাগরে একটি সুস্পষ্ট লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবেই মূলত বৃষ্টি হচ্ছে। এই লঘুচাপটি ২০ অক্টোবরের মধ্যে ভারতের ওড়িশা রাজ্যের কটক জেলা দিয়ে অতিক্রম করার কথা রয়েছে।

তবে বৃষ্টির কারণে নগরীর বেশ কিছু নিম্নাঞ্চলে পানি জমে গেছে। তাই সেখানকার মানুষদের কিছুটা ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। এর মধ্যে চকবাজার কাঁচাবাজারের সামনের সড়কে পানি দেখা গেছে।