প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক মুক্তিযোদ্ধা ছালেহকে জায়গা প্রদান

প্রকাশ:| সোমবার, ৭ আগস্ট , ২০১৭ সময় ০৯:৫৫ অপরাহ্ণ

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধে অসমান্য অবদানের জন্য মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর অন্যতম সহচর, গণ পরিষদের সাবেক সদস্য, দক্ষিণজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম আবু ছালেহকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে গত ২৪ জুলাই আড়াই কাটা সরকারী জায়গার দলিল প্রদান করা হয়। এই উপলক্ষে গত ৬ আগষ্ট সন্ধায় ৭টায় মুক্তিযোদ্ধা এম. আবু ছালেহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, রুপালী ব্যাংকের পরিচালক, দক্ষিণজেলা আওয়ামীলীগনেতা সাংবাদিক আবু সুফিয়ান, সাবেক কাউন্সিলর এড. এম.এ নাসের, সাবেক কাউন্সিলর জামাল হোসেন, সাংবাদিক আসিফ ইকবাল, লিয়াকত হোসেন, বোরহান উদ্দীন গিফারী, সালাউদ্দিন লিটন, সাইফুল আরাফাত বাপ্পা, জয়নাল আবেদীন, মোঃ ইমতিয়াজ প্রমুখ। এসময় মুক্তিযোদ্ধা এম. আবু ছালেহ তার অনুভুতিতে বলেন আজীবন বঙ্গবন্ধুর আদর্শে থেকে দেশের মানুষের জন্য কাজ করেছি। কখনো নিজের জীবনের চাওয়া পাওয়াকে প্রাধান্য দেয়নি। একজন মুক্তিযোদ্ধা ও রাজনীতিবিদ হিসেবে সর্বদা দেশের মানুষের উন্নয়নে ভুমিকা রেখে যেতে কাজ করেছি। আজ জীবনের পড়ন্ত বিকেলে বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সরকারিভাবে একখন্ড জায়গা দিয়ে যে মুল্যায়ন করেছে তার জন্য আমি আনন্দিত ও কৃতজ্ঞ। তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘজীবী হোক যাতে করে বঙ্গবনন্ধুর সোনার বাংলা অতি শ্রীঘই বাস্তবায়িত হয়। তিনি শোকের মাসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের আতœার মাগফেরাত কামনা করেন। মুক্তিযোদ্ধা এম. আবু ছালেহ তাকে সরকারি জায়গা বরাদ্দ দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং উক্ত কাজের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। এসময় সাংবাদিক আবু সুফিয়ান সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর যোগ্য উত্তরসুরী হিসেবে একজন সুদুরপ্রসারী ও বিশ্বনন্দিত নেত্রী দেশকে যেমন এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে ঠিক তেমনি এদেশের মুক্তিযুদ্ধ, ভাষা সৈনিক, গুণী ব্যক্তিদের মুল্যায়ন করে যাচ্ছে যা সত্যিই প্রশংসার। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার এরকম মহতি ও সময়োপযোগী উদ্যোগের প্রতি সন্মান জানান।