প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবকে ‘বিভ্রান্তিকর’ মন্তব্য করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে জামায়াতে ইসলামী

প্রকাশ:| শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর , ২০১৩ সময় ১১:৩৫ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ জামায়াত ইসলামীপ্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাবকে ‘বিভ্রান্তিকর’ মন্তব্য করে তা প্রত্যাখ্যান করেছে ইসলামী। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের পর জামায়াতের প্রচার বিভাগ থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল রফিকুল ইসলাম খান এ মন্তব্য করেন।
রফিকুল ইসলাম খান বলেন, ‘জনগণের আন্দোলন বানচাল করার হীন উদ্দেশ্যেই তিনি সর্বদলীয় সরকারের প্রস্তাব করেছেন। দেশের শতকরা ৯০ জন মানুষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। কাজেই আগামী ২৪ অক্টোবরের আগেই তত্ত্বাবধায়ক সরকার-ব্যবস্থা সংবিধানে পুনর্বহাল করে সংসদ ভেঙে দিয়ে পদত্যাগ করার জন্য আমি সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’
ভাষণটি অন্তঃসারশূন্য দাবি করে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ অন্তঃসারশূন্য কথামালার ফুলঝুরি ছাড়া আর কিছুই নয়। তাঁর এ ভাষণ জাতির নিকট গ্রহণযোগ্য নয়। তত্ত্বাবধায়ক সরকার-ব্যবস্থা, তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের জন্য গঠিত ট্রাইব্যুনাল, রাস্তাঘাট, যোগাযোগ-ব্যবস্থার উন্নয়ন, জনস্বাস্থ্য ও ইত্যাদি সম্পর্কে তিনি যা বলেছেন, তা নির্জলা মিথ্যাচার ছাড়া কিছুই না। এ ভাষণ দুরভিসন্ধিমূলক এবং মিথ্যাচারের দলিল।’
ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকার-ব্যবস্থা সংবিধানে পুনর্বহাল করে বিতর্কিত ও প্রশ্নবিদ্ধ ট্রাইব্যুনাল ভেঙে দেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।’ একই সঙ্গে জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতারা ১৮ দলের নেতা-কর্মী ও আলেমদের মুক্তি দিয়ে অবিলম্বে পদত্যাগ করার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।