প্রণবের বাসভবনে গুপ্ত গুহায় বৃদ্ধের সন্ধান

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর , ২০১৬ সময় ১১:৪৯ অপরাহ্ণ

ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির বাসভবন চত্ত্বরে একটি গুপ্ত গুহায় ৪০ বছর ধরে বাস করছেন এক বৃদ্ধ। নাম গাজি নুরুল হাসান (৬৮)। গত শনিবার সন্ধ্যায় ঘটে এ ঘটনা। ওইদিন রাষ্ট্রপতি ভবনের পাঁচিল টপকে ভিতরে আসার সময় বৃদ্ধকে দেখে ফেলেন টহলরত দিল্লি পুলিশ সদস্যরা। সাথে সাথেই সতর্ক করে দেয়া হয় রাষ্ট্রপতি ভবনের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সব নিরাপত্তা এজেন্সিকে।

শুরু হয় অভিযান। এরপর রাষ্ট্রপতি ভবনের পিছনের জঙ্গলে ওই বৃদ্ধের খোঁজ পান নিরাপত্তা কর্মীরা। এরপরই তাকে আটক করে নিয়ে যাওয়া হয় দিল্লির চাণক্যপুরী থানায়। জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হতে ক্রমেই হতবাক হয়ে পড়েন পুলিশের কর্মকর্তারা।

নুরুল হাসান জানান, গত ৪০ বছর ধরে রাষ্ট্রপতির ভবনের পিছনে একটি মাজারে থাকেন তিনি। মাটির নীচে সেই মাজারে তার সাথেই থাকেন তার ছেলে নূর (২২)। তার আসল বাড়ি উত্তরপ্রদেশে, কিন্তু গত প্রায় ৪০ বছর ধরে নিজের হাতেই ওই গুহাটি তৈরি করে সেখানেই থাকতেন নুরুল হাসান। কিন্তু কেন? সেই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যায়নি।

তবে নিজেকে একজন উর্দু লেখক ও ধর্মগুরু বলে পরিচয় দিয়েছেন তিনি। তার দাবি দেশটির সাবেক রাষ্ট্রপতি ফখরুদ্দিন আলি আহমেদ তাকে ধার্মিক শিক্ষক নিয়োগ করেছিলেন। সেই থেকে রাষ্ট্রপতি ভবন চত্বরেই থাকেন তিনি। এও জানা গেছে, নুরুল হাসানের ভোটার কার্ড, বিদ্যুত সংযোগ সবই রয়েছে ওই মাজারের ঠিকানায়।

তিনি আরও জানান, আগে বডিগার্ড লাইন দিয়ে যাতায়াত করতেন, কিন্তু সম্প্রতি ওই গেটটি বন্ধ করে দেয়ায় রাষ্ট্রপতি ভবনের পাঁচিল টপকে যাতায়াত করতে বাধ্য হচ্ছেন তিনি।

নুরুলের বয়ানের সত্যতা যাচাই করতে গত কযেকদিন ধরেই দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। রাষ্ট্রপতি ভবনের মতো একটি সুরক্ষিত জায়গায় গত ৪০ বছর ধরে বাস করলেও নুরুলের খোঁজ পায়নি পুলিশ কর্মকর্তারা। স্বাভাবিকভাবেই রাষ্ট্রপতি ভবনের নিরপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।


আরোও সংবাদ