পোশাকশ্রমিকেরা অর্থনীতির মূল শক্তি -প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রকাশ:| রবিবার, ১ সেপ্টেম্বর , ২০১৩ সময় ০৯:০৮ অপরাহ্ণ

sk hasinaপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘নৌকা মার্কা স্বাধীনতা দিয়েছে, মানুষকে ভাতের অধিকার দিয়েছে। নৌকা মার্কায় ভোট দিলে এ দেশের মানুষ কিছু পায়। আমরা দিতে থাকি, দিয়ে যাই।’
আজ রোববার আশুলিয়ায় আশুলিয়া স্কুল ও কলেজ মাঠে আয়োজিত সুধী ও নারী সমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী চারাবাগ এলাকায় নারী পোশাকশ্রমিকদের জন্য ১২ তলা হোস্টেলের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের বেশির ভাগ অংশজুড়েই ছিল তাঁর সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নকাজের বিবরণ। বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে তিনি আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার জন্য পোশাকশ্রমিকসহ সবার প্রতি আহ্বান জানান।
পেশাকশ্রমিকদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যখন আমি আছি তখন আপনাদের আন্দোলন-সংগ্রাম করতে হবে না। আপনাদের দেখাশোনা করা আমার দায়িত্ব।’
প্রধানমন্ত্রী শ্রমিকদের উদ্দেশে বলেন, ভবিষ্যতে পোশাকশ্রমিকদের জন্য আরও হোস্টেল ও আবাসনের ব্যবস্থা করা হবে। যদি কারখানার মালিকেরা শ্রমিকদের জন্য ডরমেটরি করতে চান, তাহলে তাঁরা তা করতে পারবেন।

শেখ হাসিনা বলেন, পোশাকশ্রমিকেরা অর্থনীতির মূল শক্তি। ১৯৯৬ সালে পোশাকশ্রমিকদের মজুরি ৯৩০ টাকা ছিল। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর শ্রমিকদের বেতন বেসরকারি খাতে ১৩৫০ ও সরকারি খাতে ১৫৫০ টাকা করা হয়। কিন্তু পরে আর তা কার্যকর হয়নি। এবার ক্ষমতায় এসে শ্রমিকদের মজুরি ন্যূনতম তিন হাজার টাকা করা হয়েছে। এই মজুরি দিতে মালিকদের বাধ্য করা হয়েছে। এজন্য পোশাকশ্রমিকদের আন্দোলন-সংগ্রাম করতে হয়নি।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, রানা প্লাজা ধসের মতো ঘটনা যেন আর না ঘটে। তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পোশাকশ্রমিকদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে। প্রত্যেক পরিবারের চাহিদার ভিত্তিতে তাদেরকে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকারের সময় যখন নারীরা এগিয়ে যাচ্ছেন, তখন দেশে এক তেঁতুল তত্ত্ব এসেছে। আর সেটা সমর্থন করেন বিএনপির নেত্রী। প্রধানমন্ত্রী বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, যাঁরা নারীদের ঘরে রাখতে চান, তাঁদের বিরোধী দলের নেত্রী কীভাবে সমর্থন করেন?


আরোও সংবাদ