পেকুয়ায় হত্যা ও অপহরণ মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী কথিত সাংবাদিক নাজিম গ্রেফতার

প্রকাশ:| সোমবার, ১৮ আগস্ট , ২০১৪ সময় ০৯:২০ অপরাহ্ণ

পেকুয়া প্রতিনিধী, পেকুয়া>>নাজিম
কক্সবাজারের জেলার পেকুয়া উপজেলায় সংগঠিত চাঞ্চল্যেকর এয়ার মুহাম্মদ হত্যা ও তার বিবাহিত কন্যা অপহরণ মামলার আসামী কথিত সাংবাদিক নাজিম উদ্দিন ওরফে টোকাই নাজিম্যাকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে পেকুয়া থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত নাজিম পেকুয়া সদর ইউনিয়নের বিলাহাসূরা গ্রামের আশরাফ মিয়ার পুত্র। আজ সোমবার রাত ৮টার দিকে পেকুয়া চৌমুহুনী এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পেকুয়া থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে পেকুয়া থানায় হত্যা অপরহণ মামলার ২টিতে গ্রেফতারী পরোয়ানা রয়েছে। যার জিআর নং ১০৭/১৩ ও ১০৮/১৩ইং।

জানা গেছে, ২০১৩ ইংরেজীর ২১ আগষ্ট পেকুয়া সদর ইউনিয়নের বটতলিয়া গ্রামের সাবেক মেম্বার আবুল হাসেমের পুত্র এয়ার মুহাম্মদকে গুলি করে হত্যা করে তার বিবাহিত কন্যা রোজিনাকে অপহরণ করে নিয়ে এলাকার চিহ্নিত দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনার পর দিন নিহতের স্ত্রী হাসিনা বেগম পেকুয়া থানায় তার স্বামী হত্যা ও মেয়েকে অপহরণের অভিযোগে পৃথক ২টি মামলা দায়ের করেন। ঘটনায় সরাসরি জড়িত থাকায় এ ২টি মামলায় আসামী করা হয়েছে, পেকুয়া সদর ইউনিয়নের বটতলীয়া পাড়া গ্রামের গোলাম সোবহান মেম্বারের দুই পুত্র নুরুল আজিম, হেলাল উদ্দিন, মৃত কবির আহমদের পুত্র বেলাল উদ্দিনসহ ৬জনকে আসামী করা হয়েছিল। এদিকে ঘটনার পর বেলাল উদ্দিনকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ্দ করেন। আদালতে ম্যাজিষ্টেটের সামনে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন বেলাল উদ্দিন। সেখানে বেলাল উদ্দিন এয়ার মুহাম্মদ হত্যা ও তার বিবাহিত কন্যাকে অপহরনের সাথে কারা কারা জড়িত ছিল তাদের নামসহ ঘটনার বিস্তারিত বিবরন দেন। বেলাল উদ্দিনের বিবরন অনুযায়ী ওই ঘটনায় সরাসরি বিলাহাসূরা গ্রামের আশরাফ মিয়ার পুত্র বিভিন্ন মামলার আসামী, মাদক সেবনকারী নাজিম উদ্দিন ওরফে বখাটে নাজিম, তার তালতো ভাই ও গোঁয়াখালী গ্রামের এমদাদুল হকের পুত্র, পেকুয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী সাজ্জাদ হোসেনসহ আরো কয়েকজন।

পেকুয়া থানার ওসি মো: আবদুর রাকিব জানান, গ্রেফতারকৃত নাজিমের বিরুদ্ধে ২টি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা থাকায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


আরোও সংবাদ