পেকুয়ায় সড়কের ইট লুট!

প্রকাশ:| সোমবার, ২৯ ডিসেম্বর , ২০১৪ সময় ১১:২৭ অপরাহ্ণ

বিশেষ প্রতিনিধি
পেকুয়ায় একটি গ্রামীন সড়ক থেকে দিব্যি ইট লোপাট অব্যহত রয়েছে। সদর ইউনিয়নের বিলহাসুরা গুরামিয়া সড়ক(গোঁয়াখালী টেকপাড়া-বিলহাসুরা সড়ক) থেকে এক শ্রেনীর ইট চোর সিন্ডিকেট রাতের আধাঁরে ইট তোলে নিয়ে যাচ্ছে।

এনিয়ে সদ্য ফ্লাট সলিং দ্বারা পুনঃসংস্কারিত ওই সড়কটি কাচা সড়কে ফের পরিনত হচ্ছে। কোন ধরনের বাধার সম্মুখিন না হওয়ায় ইট চুরির মহোৎসব সম্প্রতি আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে সড়কটি পরিদর্শন করতে গিয়ে ইট চুরির সত্যতা পাওয়া গেছে।

স্থানীয়রা জানান. গত বর্ষার আগে এ সড়কের ২চেইন অংশ স্থানীয় সাংসদ হাজ্বী মোঃ ইলিয়াসের বরাদ্ধ থেকে ফ্লাট সলিং দ্ধারা সংস্কার করা হয়েছে। সড়কটির বিপুল অবশিষ্ট অংশ এখনো কাচা রয়েছে। তবে সংস্কারকৃত ওই দু’চেইন রাস্তার ইট গত কয়েকদিন ধরে লোপাট হতে চলেছে। এরই ধারা বাহিকতায় সচিত্র প্রতিবেদনে দেখা গেছে বাবুলের বাড়ি থেকে দু’চেইন উত্তর দিকের প্রায় সড়কে বসানো ইট রাতের আঁধারে খোয়া হয়ে গেছে।

এছাড়া কিছু ইট পাশ্ববর্তী ফসলি জমিতে পাচারের জন্য স্তুপ করা হয়েছে। জানা গেছে স্থানীয়দের মধ্যে কিছু অসাধু ব্যক্তি নিজেদের প্রয়োজনে এসব ইট চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে ল্যাট্রিন,পুকুরের পাকা সিঁড়ি,ঘরের দরজার পাকা সিঁড়ি স্থাপনসহ আরো বিভিন্ন কাজে তারা সড়কের এসব ইট ব্যবহার করছে।

পেকুয়া সদর ইউপির চেয়ারম্যান এম,বাহাদুর শাহ জানান বিষয়টি আমি সবেমাত্র ওয়াকিবহাল হলাম। তবে এ ব্যাপারে পরিষদ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উর্ধ্বতন মহলকে অবহিত করবেন।

পেকুয়া এলজিইডির সহকারী প্রকৌশলী বাবু হারু কুমার পাল জানান এ ব্যাপারে আমরা সরেজমিনে যাব। যারা এ কাজে জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পেকুয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাফায়েত আজিজ রাজু বলেন এ ধরনের ন্যাক্কারজনক কাজ যারা করতে পারে তারাতো মানুষ না। আমি বিষয়টি আইনগত ব্যবস্থা নিতে এলজিইডিকে জানাব।