পেকুয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় এক ইউপি সদস্যের দুই পুত্র গুরুতর আহত

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:২৩ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া
কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের সাবেকগুলদী এলাকায় স্থানীয় দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের হামলায় কলেজ ছাত্রসহ ২জন গুরুতর আহত আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, এমরান আকবর লিমন (২২) ও তার ভাই আইয়ুব (৩০)। তারা সরকারী ঘোনা এলাকার ইউপি সদস্য বদিউল আলমের পুত্র। আহতদের স্থানীয়রা পেকুয়া সরকারী ভর্তি করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে সাবেকগুলদী ষ্টেশনে সন্ত্রাসীদের হামলায় কলেজ ছাত্র আহত হলে মুর্হুতের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সরকারী ঘোনা এলাকার কুখ্যাত ডাকাত সর্দার বহু মামলার আসামী সেলিম উদ্দিন প্রকাশ সেলিম্যা ডাকাত সশস্ত্র লোকজন নিয়ে ষ্টেশনে অবস্থান নেওয়ার খবর পেয়ে পেকুয়া থানা পুলিশ গিয়ে কয়েক দফা ধাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়।
জানা যায়, গত ৩দিন আগে সরকারী ঘোনা এলাকার মুস্তাফিজুর রহমানের পুত্র ডাকাতি, ছিনতাই, পুলিশ এসল্ট মামলাসহ ডজন খানেক মামলার আসামী সেলিম উদ্দিন এর নের্তৃত্বে ১০/১৫ জনের একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী স্থানীয় ইউপি সদস্য বদিউল আলমের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে আসছিল। তিনি দাবিকৃত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় চাঁদাবাজচক্ররা সম্প্রতি তার বাড়িতে গিয়ে ভাংচুর ও হামলা চালিয়ে তাকে আহত করে। এর পরদিন ১৫ফেব্রুয়ারী সকালে ইউপি সদস্যের মেয়ের জামাই সেনা সদস্য মোঃ নুরুল মোস্তফাকে সাবেকগুলদী ষ্টেশনে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।
এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরোদ্ধে পেকুয়া থানায় ইউপি সদস্য বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। এদিকে মামলা দায়েরের খবর পেয়ে সন্ত্রাসীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ১৬ ফেব্রে“য়ারী সকালে একই ষ্টেশনে ইউপি সদস্যের ভাতিজা মোঃ হানিফকে কুপিয়ে ৩য় দফা আহত করে। এরপর আজ মঙ্গরবার দুপুরে কলেজ ছাত্র লিমন ও তার ভাই আইয়ুব পেকুয়া চৌমুহুনীতে আসার সময় সাবেকগুলদী ষ্টেশনে পৌঁছলে সেলিমের নের্তৃত্বে আরো ১০/১২জন মিলে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় উভয়ের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার হয়।
খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসি নিলু কান্তি বডুয়া ও এস আই মোঃ কাইয়ুম ফোর্স নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনে। এ ঘটনায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যান্ত(সন্ধ্যা ৭টা)পর্যান্ত এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পেকুয়া থানার ওসি নিলু কান্তি বডুয়া জানিয়েছেন সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।