পেকুয়ায় সওজের নির্দেশ মানেনি দখলদাররা!

প্রকাশ:| শনিবার, ১০ ডিসেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:৫৭ অপরাহ্ণ


গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া
কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার মগনামা-বানিয়ারছড়া সড়কের পেকুয়া চৌমুহুনী থেকে পেকুয়া বাজার পর্যন্ত সড়কের জায়গা দখল করে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা নিজস্ব উদ্যোগে উচ্ছেদের জন্য গত এক সপ্তাহ পূর্বে মাইকিং করে সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ)। তখন মাইকিংয়ের সময় বলা হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর শনিবারের মধ্যে পেকুয়ায় সড়কের দুই পাশ থেকে এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিকে অপসারনের জন্য এক সপ্তাহ সময় বেঁধে দিয়ে সড়ক বিভাগ মাইকিং করলেও মগনামা-বানিয়ার সড়কের পেকুয়া চৌমুহুনী থেকে পেকুয়া বাজার পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে স্থাপিত অবৈধ দোকানপাটসহ স্থাপনা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে উচ্ছেদ করেনি অবৈধ দখলদাররা।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে মগনামা-বানিয়ার ছাড়া সড়কের দুই পার্শ্বে সওজের অধিগ্রহণকৃত জায়গার উপর দোকানপাঠসহ নানান ধরনের স্থাপনা তৈরী করে অবৈধভাবে ব্যবসা-বানিজ্য চালাচ্ছিল প্রভাবশালীরা। সড়কের দুই পাশ অবৈধ দখলে যাওয়ায় প্রতিনিয়গই মগনামা বানিয়ারছাড়া সড়কে দূর্ঘটনা ঘটছে। বিশেষ করে পেকুয়া বাজারে যেন সড়কের জায়গা দখলের মহোৎসব পরিণত হয়েছে। উপজেলার বৃহত্তর এ বাজারে সড়কের দুই পাশে সওজের বিপুল পরিমান জায়গা জবর দখল করে নানান ধরনের স্থাপনা তৈরী করায় বাজারে যানজট লেগে থাকে প্রতিনিয়তই। গত এক সপ্তাহ পূব্র্ সড়ক বিভাগ তরে গতকাল ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে অবৈধ দখলদারদের স্ব স্ব উদ্যোগে সরিয়ে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে সওজের পক্ষ থেকে এ নিয়ে কোন ধরনের নোটিশ দেওয়া হয়নি।

৪ দিন ধরে পেকুয়া চৌমুহুনী এলাকায় ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। পেকুয়া উপজেলার এবিসি আঞ্চলিক মহাসড়ক এলাকার দু’পাশে সওজের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে গড়ে উঠা স্থাপনা উচ্ছেদের গুঞ্জন উঠে। ফলে ঐ বিষয়টি নিয়ে এ সড়কের দু’পাশের শত শত ব্যবসায়ীদের মাঝে দেখা দেয় উচ্ছেদ আতঙ্ক।

সড়ক বিভাগ সূত্রে জানায়, সড়ক বিভাগ থেকে এক সপ্তাহ পূর্বে ব্যবসায়ীদের কে দোকানের মালামাল অন্যত্রে সরিয়ে নেওযার জন্য মাইবিং করা হয়। গতকাল শনিবারের রবিবারের মধ্যে মালামাল সরিয়ে নেওয়া না হলে অবৈধ দখলদারদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গুড়িয়ে দেওয়া হবে বলে মাইকিং করা হয়।

এদিকে নির্ধারিত সময় ফেরিয়ে গেলেও এখনও উচ্ছেদ অভিযানে নামেনি সড়ক বিভাগ। আর পেকুয়ার দুই পাশে অবৈধ দখলদাররা বীরদর্পে চালিয়ে যাচ্ছে সওজের জায়গা দখল করে ব্যবসা। স্থানীয় সচেতন দ্রুত পেকুয়ার দুই পাশ থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনার জন্য সওজের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানান।

এ বিষয়ে জানার জন্য ১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৭টা ৩২ মিনিটের দিকে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কক্সবাজার জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী রানা প্রিয় বড়–য়ার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। তাই সওজ বিভাগের কোন ধরনের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।