পেকুয়ায় মুক্তিযুদ্ধের অজানা ইতিহাস জানলেন এলাকাবাবাসী

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৭ মার্চ , ২০১৮ সময় ১১:৪৭ অপরাহ্ণ

 

পেকুয়া প্রতিনিধি:

পেকুয়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্টানে বীর মুক্তিযোদ্ধা টইটং ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান রমিজ উদ্দিন আহমদের বক্তব্য ও দলিল ইতিহাস সবার দৃষ্টি আকর্ষণ হয়েছে। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ স্বাধীনতার দিনসহ সেই সময়ে বাঙ্গালী জাতীর উপর পাকিস্তানি বাহিনী ও রাজাকার আলবদরের নির্মম নির্যাতনের কথা তুলে ধরেন তিনি। বিশেষ করে কক্সবাজার জেলাসহ পেকুয়ার বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার স্মৃতিচারণ এতদিন পেকুয়াবাসীর অজানা ছিল। যা রমিজ উদ্দিন আহমদের স্মৃতিচারণ বক্তব্যতে সবার জানা হয়ে যায়। ওই তার স্মৃতিচারণ বক্তব্য এলাকাবাসী আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়েন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা রমিজ উদ্দিন আহমদ বলেন, এক সাগর রক্তের অবগাহন করে একটি দেশ স্বাধীন হয়েছে। জাতির শ্রেষ্ট ও অকুতোভয় সন্তান দেশের জন্য প্রান দিয়েছে। অগ্নিঝরা এ মার্চ মাসে শত্রুরা নিরস্ত্র বাঙ্গালীর উপর ঝাপিয়ে পড়ে। আমরা প্রতিরোধ যুদ্ধে সম্মুখীন হয়েছি। অস্ত্র আমাদের ধমিয়ে রাখতে পারেনি। আমরা পরাধীনতার শৃংখল থেকে মুক্ত হয়েছি।

আজকে আমরা স্বাধীন জাতি। পৃথিবীর মানচিত্রে আমরা মাথা উচুঁ করে দাড়িয়েছি। স্বাধীনতার মুল ভিত্তি ছিল অর্থনৈতিক মুক্তি। সাংষ্কৃতিক ও রাজনৈতিক মুক্তিই ছিল স্বাধীনতার মুল মন্ত্র। এখন প্রয়োজন অর্থনৈতিক মুক্তি।
গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে পেকুয়ায় জাতির শ্রেষ্ট সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি হানিফ চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্টিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহাবুব উল করিম। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাফায়াত আজিজ রাজু। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম খান, কক্সবাজার জেলা আ’লীগের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট কামাল হোসেন, জেলা আ’লীগের সদস্য এস,এম গিয়াস উদ্দিন, উম্মে কুলসুম মিনুসহ মুক্তিযোদ্ধারা বক্তব্য রাখেন। এ সময় উপজেলার সকল বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, শিক্ষক, শিক্ষিকা ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।
এর পূর্বে অতিথিবৃন্দ মহান মুক্তিযোদ্ধাদের উপহারসামগ্রী প্রদান করেন ও তাদেরকে ফুল দিয়ে বরন করেন।


আরোও সংবাদ