পেকুয়ায় ডিলারের বিরুদ্ধে সার পাচারের অভিযোগ

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ৪ মার্চ , ২০১৪ সময় ০৯:১০ অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া থেকে
কক্সবাজারের পেকুয়ায় ইউরিয়া সার পাচারের নতুর পয়েন্ট উজানটিয়ার পেকুয়ার চর। সার পাচারকারীরা ওই স্থানে মজুদ করে নৌপথে মায়ানমারসহ দুরবর্তী স্থানে পাচার অব্যহত রেখেছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে সুতাচুড়া এলাকায় বিসিআইসির নিযুক্ত সাব-ডিলার ইউসুফ আলী ক্ষমতাসীন দল আ’লীগের ইউনিয়ন সাধারন সম্পাদক ও ৫নং ওর্য়াডের ইউপি সদস্য শাহ জামালের ছত্রছায়ায় সম্প্রতি ইউরিয়া সার পাচার করছে। জানা যায় গত ৩বছর আগে উজানটিয়া ইউনিয়নে সার সরবরাহের নিমিত্তে বিসিআইসি ওই ইউনিয়নের জন্য তিনজন সাব-ডিলার নিযুক্ত করেন।
জানা গেছে উজানটিয়া ইউনিয়নে বর্তমানে বোরো মৌসুমে অপ্রতুল জমিতে চাষ হয়ে আসছে। সারের চাহিদা কম থাকলেও ডিলাররা পাচারের উদ্দেশ্যে চাহিদার তুলনায় অতিরিক্ত সার-সরবরাহ নিয়ে বিভিন্ন এরাকায় নির্বিঘেœ পাচার করে আসছে বলে স্থানীয়রা নিশ্চিত করেছেন। এদিকে পেকুয়ার চরে ইউসুফ আলী প্রকাশ ডান্ডি, সোনালী বাজারে আবু ছালাম ও করিয়ারদ্বিয়ায় জাফর আলম সাব-ডিলার হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন।
অভিযোগ উঠেছে সাব-ডিলার ইউসুপ আলী প্রকাশ ডান্ডি পেকুয়ারচর-উজানটিয়া সড়কের লাগোয়া মুদির দোকানের পার্শ্ববর্তী স্থানে সারের গুদাম থেকে কৃষকদের জন্য বরাদ্ধকৃত সার সংকট দেখিয়ে অন্যত্রে পাচার করছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে অভিযুক্ত ওই সাব-ডিলার গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার দোকান থেকে একটি মিনি পিকআপ যোগে অন্তত ১০/১৫বস্তা ইউরিয়া সার পাচারের জন্য নিয়ে যাচ্ছিল। পরে স্থানীয়রা সারসহ গাড়ি জব্দ করে রাখলে পরে বেগতিক অবস্থা দেখতে পেয়ে ডিলার সার গাড়ি থেকে নেমে ফেলে দোকানে নিয়ে আসে। প্রতি বস্তা ইউরিয়া সারের সরকারী মুল্য ৭৭০টাকা। সে হিসেবে প্রতি কেজি সারের মুল্য পড়ে ১৬টাকারও কম। কিন্তু কৃষকরা জানিয়েছেন সাব ডিলার ইউসুফ আলী প্রতি বস্তা ইউরিয়া সার বিক্রি করছে ১হাজার থেকে ১২শ টাকার চেয়ে বেশি দামে। অন্যদিকে ওই ডিলার অন্যত্রে পাচারের জন্য তার বরাদ্ধের চেয়েও ইউরিয়া সার অন্য ডিলারদের কাছ থেকে বস্তায় বস্তায় তার দোকানে মজুদ করে নাম মাত্র কৃষকদের নিকট সরবরাহ দিয়ে অধিকাংশ সার এলাকার বাইরে বিভিন্ন স্থানে পাচার করছে। অভিযোগ রয়েছে বোরো মৌসুম শুরুর সাথে সাথে শতশত কৃষকরা সার নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছে। এদিকে নিদির্ষ্ট সময়ে সার না পেয়ে গতকাল মঙ্গলবার সকালে পেকুয়ার চর এলাকায় সাব-ডিলার ইউসুপ আলীর দোকান ঘেরাও করেছে বিক্ষোব্ধ কৃষকরা।
সার-ডিলার ইউসুফ আলী তার বিরোদ্ধে অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করে বলেন এসব তার বিরোদ্ধে ষড়যন্ত্র। এ ব্যাপারে পাচারের বিষয়টি প্রমানিত হলে খুচরা ডিলারের লাইসেন্স স্থগিত করবেন বলে জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পেকুয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ.কে.এম নাজমুল হক সার পাচারের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন। তবে তিনি কৃষকদের অভিযোগ খতিয়ে দেখবেন।