পেকুয়ায় গৃহবধু খুন: ঘাতক স্বামী আটক

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ২৬ আগস্ট , ২০১৪ সময় ০৯:২৮ অপরাহ্ণ

পেকুয়া সংবাদদাতা
কক্সবাজারের পেকুয়ায় যৌতুকের দাবীতে পাষন্ড স্বামীর নির্যাতনে এক গৃহবধূ খুন হয়েছে। পুলিশ ঘাতক স্বামীকে আটক করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসীদের সূত্রে জানা যায়, আজ মঙ্গলবার ভোর রাত সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের রব্বত আলী পাড়া এলাকায়। জানা যায়, পাশ্ববর্তী উপজেলা কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ ইউনিয়নের মাতবর পাড়া এলাকার মৌলভী সামশুল ইসলামের পুত্র শহিদুল ইসলাম (২৪) পেকুয়ার রাজাখালী সবুজ বাজারস্থ আল¬াহর দান নামের একটি বেকারীতে দীর্ঘ দুই বছর যাবৎ চাকুরী করর সুবাদে বেকারীর মালিক সুজানগীরের শালিকা চকরিয়া উপজেলার কোণাখালী ইউনিয়নের মধ্যম কোণাখালী এলাকার দিনমজুর সবির আহম্মদের মেয়ে এস্তফার সাথে ১ বছর আগে প্রেমের সর্ম্পকের বিয়েতে আবদ্ধ হয়। বিয়ের পর দুই জনেই রাজাখালী ইউনিয়নের রব্বত আলী পাড়া এলাকায় একটি ঘর ভাড়া নিয়ে সুখের সংসার গড়ে উঠলেও শেষ পর্যন্ত যৌতুকের দাবীতে পাষন্ড স্বামী কয়েকবার নির্যাতনের পর শেষ পর্যন্ত ২৬আগষ্ঠ ভোর রাতে পাষন্ড স্বামীর হাতে হতভাগী এস্তফা মৃত’্য বরণ করে।

স্থানীয় লোকজন বলেন, ভোর রাতে স্বামী স্ত্রীর ঝগড়া হলে সকালে শহিদের বসতঘরের দরজা বন্ধ দেখলে এলাকার মহিলারা এস্তফাকে ডাকতে থাকে। এক পর্যায়ে এলাকার লোকজন গিয়ে দরজা খুলে গৃহবধূ এস্তফা আরার গলায় গামছা পেছানো অবস্থায় দেখে পেকুয়া থানা পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে পেকুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: রকিব ও এস আই বিমল ঘটনাস্থলে গিয়ে গৃহবধূ এস্তফা আরার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসে। পরে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। থানাসূত্রে জানায় লাশের গলায় শরীরে নির্যাতনের দাগ রয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে রাজাখালীর আরবশাহ বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘাতক স্বামীকে পুলিশ আটক করে থানায নিয়ে এসেছে।

নিহত গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগ, শহিদ দীর্ঘ দিন ধরে যৌতুক দাবী করে আসছে। যৌতুকের কারণে এস্তাফা কে নির্যাতন চালিয়ে খুন করেছে। আমরা এর সুষ্ট বিচার দাবী করছি।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রকিরের সাথে যোগাযোগ করা হলে ময়না তদন্ত রির্পোটের উপর ভিত্তি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান।


আরোও সংবাদ