পেকুয়ার রাজাখালী এরশাদ আলী ওয়াকফ এষ্টেট এর মোতায়াল্লী হানিফ চৌধুরীর বিবৃতি

প্রকাশ:| বুধবার, ১ জানুয়ারি , ২০১৪ সময় ০৯:৩৫ অপরাহ্ণ

কয়েকটি অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে পেকুয়ার রাজাখালী এরশাদ আলী ওয়াকফ এষ্টেট পরিচালনা কমিটির মোতায়াল্লী বিশিষ্ট সমাজ সেবক হানিফ চৌধুরীর বিবৃতি
মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন,কক্সবাজার প্রতিনিধি
গত ২৯.১২.২০১৩ ইং তারিখে চকরিয়া নিউজ ডটকমসহ বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায় ‘পেকুয়ায় শত শত লবন চাষীদের মাঝে স্বস্তি- রাজাখালী এরশাদ আলী ওয়াকফ এষ্টেট পরিচালনা কমিটির সভাপতি হানিফ চৌধুরীকে অব্যাহতি’ প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদটি সম্পর্কে বিবৃতি দিয়েছেন ওই এস্টেটের মোতায়াল্লী বিশিষ্ট সমাজসেবক হানিফ চৌধুরী। তিনি বিবৃতিতে উল্লেখ করেছেন, প্রকাশিত সংবাদটি সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকরা মনগড়াভাবে বানোয়াট তথ্যসৃজন করে অনলাইন পত্রিকায় প্রকাশ করেছে। যাহা বাস্তবতার সাথে কোন মিল নেই। এছাড়া আমি বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদিত বৈধ মোতায়াল্লী। অব্যহতি দেওয়ার কোন প্রশ্নই আসেনা। একটি কুচক্রি ও স্বার্থন্বেষী মহল আমার বিরুদ্ধে এহেন অপপ্রচার চালিয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। এসব স্থানীয় বর্ণচোররা অনলাইন পত্রিকায় ভূঁয়া সংবাদ পরিবেশন করে ফাঁয়দা হাসিলের কুমতলবে কাজ শুরু করেছে। যা কোন দিন সফল হবেনা।
বিবৃতিতে হানিফ চৌধুরী আরো উল্লেখ করেছেন, এরশাদ আলী ওয়াকফ এস্টেটে আমি মোতায়াল্লী থাকাকালীন কোন লবণ চাষীতো দূরের কথা এলাকার কোন সাধারান মানুষ ও আমার দ্বারা হয়রানীর শিকার হয়নি। বরং সম্প্রতি সময়ে ওয়াকফ প্রশাসন আমাকে আগামী ৫ বছরের জন্য মোতায়াল্লী নিয়োগ করায় পুরো এস্টেট এলাকার বাসিন্দারা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এখন উল্টো আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগের কল্প-কাহিনী রং ছিটিয়ে প্রকাশ করা হচ্ছে। আমি প্রকাশিত ওই সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোরালো প্রতিবাদ জানিয়েছেন এবং এ বিষয়ে প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষসহ এলাকাবাসীকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ ও করেছেন।

প্রতিবেদনটি হানিফ চৌধুরীর বিবৃতির আলোকে তৈরী