পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনায় ১১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:১৭ অপরাহ্ণ

সেলিম উদ্দিন, ঈদগাঁও প্রতিনিধি, কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নে বুধবার বিকেলে মহাসড়ক দখল করে অবৈধভাবে বসানো কোরবানীর পশুর হাট অন্যত্র সরিয়ে নিতে হাইওয়ে পুলিশ মাইকিং করতে গেলে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় ১১৫জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে। মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের আইসি আশিকুর রহমান বাদি হয়ে ঘটনার দিন রাতে থানায় পুলিশের ওপর হামলা এবং কর্তব্য কাজে বাঁধা দেয়ার অপরাধে মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারে ১৫জনের নাম উল্লেখ্য ও একশত জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই মামলায় পুলিশ এজাহারনামীয় দুই আসামিকে খুটাখালী বাজার থেকে গ্রেফতার করেছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও চকরিয়া থানার এসআই সুকান্ত চৌধুরী বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে খুটাখালী ইউনিয়নে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারনামীয় দুইজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁরা হলেন সাহাব উদ্দিন (৪০) ও মোহাম্মদ জনি (২৬)।
থানা পুলিশ জানায়, কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার খুটাখালী কিশলয় স্কুল গেইট থেকে তমিজিয়া মাদ্রাসা পয়েন্ট পর্যন্ত উভয় পাশে কোরবানির পশুর হাট বসানো হয়। প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে আবার সড়ক দখল করে পশুর হাটটি অবৈধ ভাবে গড়ে তোলার কারনে মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ বুধবার বিকেলে পশুর হাট সরিয়ে নিতে মাইকিং করেন। এসময় হাইওয়ে পুলিশের একটি দল পশুর হাটে গেলে এক পর্যায়ে উত্তেজিত জনতা পুলিশকে লক্ষ করে ইট পাটকেল ছুড়লে এতে পুলিশ জনতার সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। এসময় জনতা পুলিশ ভ্যানের উপর হামলা চালিয়ে লাইট ভাংচুর করেন। ঘটনার সময় প্রায় একঘন্টা সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এতে আটক পড়ে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামমুখী তিনশতাধিক যানবাহন। ঘটনার খবর পেয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম ও থানা পুলিশের একটিদল ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেন। এরপর সড়ক যোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।