পুতিনের ক্ষমায় মুক্তি পেলেন ‘পুরনো শত্রু’

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২০ ডিসেম্বর , ২০১৩ সময় ০৬:৫৬ অপরাহ্ণ

পুতিনরাশিয়ার প্রাক্তন তেল ব্যবসায়ী ধনকুবের মিখাইল খোদরকোভস্কি ১০ বছর সাজা ভোগের পর প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ক্ষমায় শুক্রবার মুক্তি পেলেন। খোদরকোভস্কির ব্যাক্তিগত আইনজীবি বার্তা সংস্থাগুলোকে এ খবর জানিয়েছেন। এ ক্ষমার ঘটনা রুশদের মাঝে বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট পুতিন, ১০ বছরের প্রাক্তন কয়েদী, রুশ ধনকুবেরদের অন্যতম মিখাইল খোদরকোভস্কির প্রতি ক্ষমা প্রদর্শনের মর্মে লিখিত একটি নির্বন্ধে স্বাক্ষর করেন। সেখানে মানবতার খাতিরে বন্দিকে মুক্তি দেয়ার উদ্যোগের কথা উল্লেখ করা হয়।

ইতোপূর্বে গত বৃহস্পতিবার পুতিন জানিয়েছেন, তিনি খোদরকোভস্কির কাছ থেকে একটি বিশেষ অনুরোধপত্র পেয়েছেন। সেখানে মাতা গুরুতর অসুস্থ বিধায় মানবিক বিবেচনায় ক্ষমা লাভে মুক্তির আবেদন জানিয়েছেন খোদরকোভস্কি।

পুতিন সে আবেদন মঞ্জুর করেছেন।

মিখাইল খোদরকোভস্কি করফাঁকি এবং বিরোধীদলকে অর্থায়নের মামলায় আসামী হয়ে বিগত দশ বছর ধরে সাজা ভোগ করছিলেন। বিশ্লেষকদের মতে, তার এ দীর্ঘ কারাবাসের পেছনে পুতিনের রোষ কাজ করেছে।

তিনি ইতোপূর্বে বহুবার নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করেছেন।

রাশিয়ার সামনে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠান। সে দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগের ভিত্তিতে অনেক দেশ এবং এথলেট যখন অলিম্পিক অনুষ্ঠানে যোগ দেবার ব্যাপারে দ্বিমত পোষণ করেছেন, তখন ‘পুরনো শত্রু’ খোদরকোভস্কিকে মুক্তি দিয়ে অভিযোগের বিরুদ্ধে সাফাইয়ের পথ পরিষ্কার করলেন রুশ প্রেসিডেন্ট, এমনটা ভাবছেন অনেকে।


আরোও সংবাদ