পুকুর সংস্কারের নামে ১০ লাখ টাকা লোপাটের অভিযোগ

প্রকাশ:| রবিবার, ৮ মে , ২০১৬ সময় ১০:৩৮ অপরাহ্ণ

পুকুর ভরাট ২
চট্টগ্রাম মহানগরীর সদরঘাটস্থ ট্রাফিক উত্তর বিভাগের পুকুর সংস্কারের নামে ১০ লক্ষ টাকা লোপাটের অভিযোগ উঠেছে সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ের এক ট্রাফিক পরিদর্শকের বিরুদ্ধে।
জানা গেছে, সদরঘাট ট্রাফিক অফিসের পিছনে মসজিদ সংলগ্ন পুকুরটি দীর্ঘ দিন ধওে সংস্কারের অভঅবে ব্যবহারের অনুপযুগী হয়ে পরে। এত করে ট্রাফিক অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারি ও মসজিদের মুসল্লিদের পুকুরটি ব্যবহার করা দূসাধ্য হয়ে পড়ে। পুকুরটি সংস্কারের জন্য নানা মহলে দাবী উঠলে অতি সম্পতি সদ্যসাবেক উপ-পুলিশ কমিশনার ট্রাফিক উত্তর বিভাগ জনাব মাসুদ উল হাসান পুকুরটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয়। তিনি ট্রাফিক কল্যাণ ফান্ড থেকে ৬ লক্ষ টাকা উক্ত পুকুরটি সংস্কারের জন্য টিআই প্রশাসন সরোয়ার মোহাম্মদ পারভেজের নামে চেক প্রদান করেন।
অভিযোগ রয়েছে যে, চট্টগ্রাম মহানগরীর ট্রাফিক উত্তর বিভাগে কর্মরত টিআই ও সার্জেন্টদেও কাছ থেকে নানা অংকে আরো ৬ লক্ষ টাকা চাঁদা উঠান তিনি। এতে মাত্র ২ লক্ষ টাকা খরচ করে বাকি টাকা আতœসাৎ করায় বিষয়টি সংশ্লিষ্ট ট্রাফিক অফিসসহ নানা মহলে কানাগুঁসা চলছে।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে টিআই প্রশাসন সরোয়ার মোহাম্মদ পারভেজ নিজেকে সাচ্চা ঈমানদার দাবী করে বলেন, আমি নিজে শ্রমিকসহ সমস্ত উপকরণাধী সর্বনিন্ম মূলে ক্রয় করেছি। আমি কোন লুটপাট বা অনিয়মের সাথে জড়িত নই।
জানতে চাইলে সাবেক উপ পুলিশ কমিশনার ও বর্তমান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মাসুদ উল হাসান বলেন, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার এই বিষয়ে বলেন, আমরাতো কোন পুকুর সংস্কার করতে পারিনা। পুকুর সংস্কারের বিষয়টি আমার নজরে নেই। আমি খোজ খবর নিয়ে দেখব।


আরোও সংবাদ