পাগলিরবিলে প্রভাবশালী কর্তৃক নির্বিচারে পাহাড় কর্তন

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই , ২০১৭ সময় ০৫:০৮ অপরাহ্ণ

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি:
উখিয়ার উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের পাগলির বিল রাবার ড্যাম্প সড়কের মাঝপথে স্থানীয় এক প্রভাবশালী সরকারি বনভূমি’র বিশাল পাহাড় কেটে বসতভিটা তৈরীর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্ঠ বিট কর্মকর্তা ও ইউপি মেম্বারের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় এভাবে দেদারছে পাহাড় কাটা অব্যাহত রাখলেও দেখা বা বলার কেউ নেই। এ নিয়ে স্থানীয় লোকজন উখিয়া রেঞ্জ অফিস ও কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগকে অবহিত করেও কোন কাজ হচ্ছেনা বলে জানিয়েছেন অভিযোগকারীরা।
জানা গেছে, সারা দেশে নির্বিচারে পাহাড় কাটার ফলে পাহাড় ধ্বসের ঘটনা ঘটছে অহরহ। এসব পাহাড় ধ্বসে সম্প্রতি উখিয়ার পাশ^বর্তী ঘুমধুমে ছমুদা খাতুন (৫৫) নামের গৃহবধূ সহ তিন পার্বত্য জেলায় শতাধিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। এছাড়াও গত সোমবার বান্দরবানে পাহাড় ধ্বসে ব্যাংক কর্মকর্তা, পরিবার পরিকল্পনা সহকারী, পোস্ট অফিসের কর্মচারী সহ ৮জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এর জন্যে নির্বিচারে পাহাড় কাটাকে দায়ী করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহারদুর উশৈসিং এমপি। তিনি সম্প্রতি পাহাড় ধ্বসে নিহত ছমুদা খাতুনের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদানকালে এসব কথা বলেন।
কিন্তু এরপরও অসাধূ কতিপয় প্রভাবশালীরা পাহাড় কাটা বন্ধ করছেনা। এ উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের কামাল উদ্দিন গত ২২জুলাই থেকে ১৫/২০জন শ্রমিক দিয়ে প্রবল বর্ষণের সময় রাতদিন উপেক্ষা করে একটি বিশাল পাহাড় কেটে শ্রেণী পরিবর্তনের মাধ্যমে বসতভিটা তৈরীর কাজ চালিয়ে আসছে। স্থানীয় লোকজন এতে বাঁধা দিলেও তা তোয়াক্কা করছেনা কামাল উদ্দিন।
হলদিয়া বিট কর্মকর্তা সালেহ আহমদ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি নিজেই এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অভিযুক্ত কামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আবেদন পাঠিয়েছি। একই ভাবে ইউপি মেম্বার আলী মিয়া তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমিও এতে বাঁধা দিয়েছি।
উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম এর নিকট এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি আমি আগে শুনিনি। আজকেই মুঠো ফোনে সংশ্লিষ্ঠ বিট কর্মকর্তার নিকট থেকে বিষয়টি জেনে অবশ্যই অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।