পাকিস্তানের হাইকমিশনারকে তলব

প্রকাশ:| রবিবার, ২২ নভেম্বর , ২০১৫ সময় ১০:২৮ অপরাহ্ণ

মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার নিয়ে পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ার প্রতিবাদে ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির হাইকমিশনার সুজা আলমকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সুজা আলমকে আগামীকাল সোমবার দুপুরে ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রসচিব মো. মিজানুর রহমানের সঙ্গে দেখা করতে বলেছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আজ রোববার সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামায়াত নেতা আলী আহসান মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর নিয়ে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কাল হাইকমিশনার সুজা আলমের কাছে আনুষ্ঠানিক প্রতিবাদপত্র দেওয়া হবে।
ঢাকায় পাকিস্তানের হাইকমিশনের মুখপাত্র আজ সন্ধ্যায় মোবাইলে প্রথম আলোকে জানান, হাইকমিশনারকে সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে ভারপ্রাপ্ত পররাষ্ট্রসচিবের সঙ্গে দেখা করতে বলা হয়েছে।
পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কাজী এম খলিলুল্লাহ আজ এক বিবৃতিতে বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামায়াত নেতা আলী আহসান মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানান।
পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ায় কাজী এম খলিলুল্লাহ বিবৃতিতে বলেন, আমরা গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভের সঙ্গে বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মুজাহিদের দুর্ভাগ্যজনক মৃত্যুদণ্ডের ঘটনা লক্ষ্য করেছি। এ ঘটনায় আমরা গভীরভাবে অসন্তুষ্ট।
পাকিস্তানের মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশে ১৯৭১ এর ঘটনাবলি নিয়ে ত্রুটিপূর্ণ বিচার প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের যে প্রতিক্রিয়া আমরা লক্ষ্য করছি, তা নিয়ে আগের মতো আবার গুরুত্ব দিচ্ছি।
পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কাজী এম খলিলুল্লাহ বলেন, ১৯৭৪ সালের ৯ এপ্রিল পাকিস্তান, ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তির মূলনীতি অনুসারে বাংলাদেশে আপস-রফা হওয়া উচিত। ওই চুক্তিতে ১৯৭১ প্রশ্নে ভবিষ্যৎমুখী দৃষ্টিভঙ্গির কথা বলা হয়েছে, যা সদিচ্ছা ও সংহতি জোরদার করবে।