অন্তস্বত্বা গৃহবধুর খোঁজ মেলেনি

প্রকাশ:| রবিবার, ১৩ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ১০:২২ অপরাহ্ণ

 
বি এম হাবিব উল্লাহ, চকরিয়া, কক্সবাজার প্রতিনিধি-

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের বার আওলিয়া নগরের বসিন্দা কৃষক মোঃ উচমানের ৫মাসের অন্তস্বত্বা স্ত্রী গৃহবধু শরমিন আক্তার সালমা পলায়নের দু’ মাস অতিবাহিত হলেও অসহায় স্বামী উচমান এখনো তার স্ত্রীকে খোজে না পেয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। শুধুই স্ত্রীর প্রতি নয়, শরমিন আক্তার সালমা ছাড়াউ তার গর্ভে থাকা পাঁচ মাসের বাচ্চার জন্যও বাবা হিসেবে উচমান পাগলের মতো আদালতের দ্বারে দ্বারে ঘোরে বেড়াচ্ছে। সালমা বার আওলিয়া নগরের নুরুল হোসেনের মেয়ে। সালমার সাথে একই এলাকার ওমর মিয়ার ছেলে কৃষক এই উচমানের বিয়ে হয় বিগত পাঁচ বছর পুর্বে। সামাজিক ভাবেই তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। এ নিয়ে স্ত্রী ও তার গর্ভে থাকা সন্তানকে ফিরে পেতে উচমান বিগত ১০ অক্টোবর চকরিয়া জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ঠ্রেট আদালতে একই এলাকার হোসন আহমদের পুত্র বেলাল উদ্দিন সহ অপরাপর আরো চার ব্যাক্তি সহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-সিআর-১০৮৭/২০১৬। মামলাটি আদালতের নির্দেশে চকরিয়া থানার এসআই মোঃ কামাল হোসেন তদন্ত করছেন। সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে উচমান জানায়, দীর্ঘদিন ধরে তার মামলার আসামী প্রতিবেশি বিদেশ প্রবাসী বেলাল নামের ওই যুবকের সাথে তার স্ত্রীর পরকিয়া প্রেম চলে আসছিল। নিজ স্ত্রীর বিষয়টি জেনেও তার ভবিশ্যত সন্তানের দিকে চেয়ে সে রিতীমত সব সহ্য করে আসছে। এমতাবস্থায় বাড়ীতে রক্ষিত নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার সহ স্ত্রী সালমা গত ২৯ সেপ্টেম্বর ওই যুবক বেলালের সাথে পালিয়েছে বলে ধারনা করছেন। এদিন সালমা সকাল সকাল চাচার বাড়ীতে যাওয়ার নাম করে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। অদ্যবদী তাদের কাউকেই খোজে পাওয়া যায়নি। এদিকে তার শাশুর বাড়ীর লোকজনও বেলালের পক্ষ অবলম্বন করছে বলে অভিযোগ করেছেন উচমান। বর্তমানে সে স্ত্রী ও তার স্ত্রীর গর্ভে থাকা সন্তানকে ফিরে পেতে এলাকাবাসী ও প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেছেন। অন্যদিকে উচমান উল্টো শাশুরবাড়ীর লোকজনের হুমকির সম্মুখিনও হচ্ছে বলে প্রতিবেদককে জানায়। মামলার আয়ু এসঅই কামাল জানান, মামলাটির বিষয়ে তদন্ত সহ আসামীদের ধরার প্রচেষ্ঠা চলছে।


আরোও সংবাদ