পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভাবনা, কাপ্তাইয়ে নতুন পিকনিক স্পট “গিরি নন্দিনী”

প্রকাশ:| রবিবার, ১২ জানুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:০১ অপরাহ্ণ

গিরি নন্দিনীনজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাই।
পর্যটনের অপার সম্ভাবনা বিবেচনায় সৌন্দর্যের রাণী হিসাবে পরিচিত কাপ্তাই উপজেলায় বেসরকারীভাবে আরো একটি পিকনিক স্পট ‘গিরি নন্দিনী’ গড়ে তোলা হয়েছে। প্রকৃতির অপরূপ শোভামন্ডিত কর্ণফুলী নদীর কোলঘেঁষে শীলছড়ি এলাকায় ১২ আনসার ব্যাটেলিয়ানের উদ্যোগে নতুন এই পিকনিক স্পট তৈরি করা হয়। সম্প্রতি গিরি নন্দিনী পিকনিক স্পটের উদ্বোধন করেন ১২ আনসার ব্যাটেলিয়ানের অধিনায়ক মাহবুবুর রহমান।
গিরি নন্দিনী যেখানে গড়ে তোলা হয়েছে তার পাশেই রয়েছে সুপরিচিত কর্ণফুলী নদী। নদীর ধারে গোলঘর অথবা চেয়ারে বসলে খনিকের জন্য হলেও আপনি অন্য চিন্তা ভুলে যাবেন। নদীর পাশেই আবার রয়েছে ছায়াঘেরা অপরূপ সুন্দর সুউচ্চ পাহাড়। এখানে বসে নদীতে মৃদু ঢেউয়ে ভেসে চলা নৌকা, সাম্পান, স্পীটবোট সহ দুরদুরান্ত থেকে আসা কলা, জ্বালানী কাঠ, ফলমূল, তরিতরকারী ভর্তি ইঞ্জিনচালিত বোট যেতে দেখা যাবে। এ ধরনের দৃশ্য দেখে যে কেউ মুগ্ধ না হয়ে পারবেনা। পিকনিক স্পটের নিকটেই কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের এক পাশে আছে কিংবদন্তির ‘রাম পাহাড়’ ও নদীর অপর প্রান্তে রয়েছে ‘সীতার পাহাড়’। সীতার পাহাড়ের পাদদেশে গড়ে তোলা হয়েছে একটি সীতার মন্দির। কথিত আছে, মন্দিরের পাশে কর্ণফুলী নদীর এঘাটে সীতা দেবী স্ন্যান করতেন। ঐতিহাসিক রাম পাহাড় সীতার পাহাড়ের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। নদীতে ব্যাটেলিয়ানের নিজস্ব স্পীটবোটে ঘুরে বেড়ানোর সুবিধা রয়েছে।
এছাড়া এখানে বিশ্রামের জন্য কটেজ, আকর্ষণীয় বেঞ্চ, রঙ্গিন ছাতা, গোলঘরসহ খেলাধুলার জন্য খোলা জায়গা এবং অনুষ্ঠান করার জন্য এখানে বিশাল হলরুম আছে। তাই তো অনাবিল আনন্দ পেতে প্রতিদিন সৌন্দর্য পিপাসুরা ছুটে আসছে পিকনিক স্পটে। বর্তমানে ৫ আনসার ব্যাটেলিয়ানের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, কাপ্তাইয়ে পর্যটন শিল্পের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে। এ সম্ভাবনা মাথায় রেখে গিরি নন্দিনী তৈরী করা হয়েছে। এর উন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ধাপে ধাপে পিকনিক স্পটকে সাজানো হচ্ছে। ফলে শুরু থেকে প্রতিদিনই দুরদুরান্ত থেকে দলেদলে পিকনিক পার্টি আসছে। অনেকে আগাম বুকিং দিয়ে যাচ্ছে।
উল্লেখ্য, পর্যটনের ব্যাপক সম্ভাবনা থাকা সত্বেও কাপ্তাইয়ে সরকারী ভাবে কোন পর্যটন শিল্প গড়ে উঠেনি। ইতিমধ্যে উপজেলায় বেসরকারীভাবে বেশ কয়েকটি পিকনিক স্পট গড়ে তোলা হয়েছে। এর মধ্যে কাপ্তাই বিজিবি কতৃক জুমরেস্তোরা, বেসরকারী বনশ্রী কমপ্লেক্স, পাহাড়িকা পিকনিক স্পট, বনবিভাগের প্রশান্তি পিকনিক স্পট, শহীদ মোয়াজ্জেম নৌঘাঁটি পিকনিক স্পট, বিএফ আইডিসি পিকনিক স্পট অন্যতম। সরকারী ভাবে পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটানো হলে সরকার এ খাত থেকে প্রতিবছর বিপুল পরিমানে রাজস্ব আয় করতে পারে।


আরোও সংবাদ