পবিত্র ফাতেহা-এ-এয়াজদাহুম মাহফিলে অধ্যক্ষ ছৈয়্যদ মুনির উল্ল¬াহ্ গাউছিয়্যতের বাস্তবতা কাগতিয়া দরবারে

প্রকাশ:| মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারি , ২০১৪ সময় ১০:৩৫ অপরাহ্ণ

শফিউল আলম রাউজান প্রতিনিধি :কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের মহান মোর্শেদ আওলাদে রাসূল হযরতুলহাজ্ব শাহছুফি অধ্যক্ষ আল¬¬ামা ছৈয়্যদ মুহাম্মদ মুনির উল¬¬াহ্ আহমদী মাদ্দাজিল¬ুহুল আলী বলেছেন, গাউছে পাক জিলানীর বেলায়তের রূপরেখা বর্তমানে কাগতিয়া দরবারেই বিদ্যমান। ফয়েজ, তাওয়াজ্জুহ, মোরাকাবা, মোশাহাদা ইত্যাদি রূহানী জগতের হারিয়ে যাওয়া নেয়ামতগুলো আজ কাগতিয়ার মহান মোর্শেদ, আওলাদে মোস্তফা, খলীফায়ে রাসূল হযরত শায়খ ছৈয়্যদ গাউছুল আজম মাদ্দাজিল্লুহুল আলী পুণঃজীবিত করে লক্ষ লক্ষ যুবক যুবতীকে আত্মশুদ্ধি করে যাচ্ছেন।
তিনি গতকাল ১১ ফেব্র“য়ারি মঙ্গলবার রাউজান কাগতিয়া আলীয়া গাউছুল আজম দরবার শরীফের ৬০তম পবিত্র ফাতেহা-এ-এয়াজদাহুম উদ্যাপন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমানের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ তকরির রাখছিলেন।
তিনি আরও বলেন, আজ থেকে ৬০ বছর পর্যন্ত ফাতেহা-এ-এয়াজদাহুম এর মাহফিল করে যুগের গাউছুল আজম মাদ্দাজিল্লুহুল আলী মুসলিম মিল্লাতকে গাউছে পাক জিলানীর আদর্শ শিখিয়ে যাচ্ছেন। তরিক্বতের সোনালী অধ্যায়গুলো নতুন করে উজ্জীবিত করছেন। এমন কঠিন যুগে মুসলিম নর-নারীর অভ্যন্তরীন অঙ্গ প্রত্যঙ্গ তথা ক্বলব, রূহ, ছির, খফি, আখফা, নফস, বা’দ, নার ইত্যাদিতে নবীজির নূরে বাতেন নিক্ষেপ করে আল্লাহ-আল্লাহ জিকিরের মাধ্যমে গরম, ঠান্ডা, ভারী, কম্পন অনুভব করার মত পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া নিঃসন্দেহে গাউছিয়্যতের বহিঃপ্রকাশ। সুতরাং এমন যুগে এমন যুগশ্রেষ্ঠ মহান আধ্যাত্মিক মনিষী যুগের গাউছুল আজমের সন্ধান পাওয়া মুসলিম মিল্লাতের জন্য আল্লাহ ও নবীজির পক্ষ থেকে এক মহা নেয়ামত। তিনি এদেশের যুব সমাজ তথা মুসলিম মিল্লাতকে এ মহান মনিষী যুগের গাউছুল আজমের তরিক্বত গ্রহণ করে নিজেকে ইনসানে কামেল হিসাবে গড়ে তোলার জন্য আহবান করেন।
এতে অন্যান্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ওলামা পরিষদের সচিব আল্লামা মুফতি মুহাম্মদ ইব্রাহিম হানফি, উপাধ্যক্ষ আল্ল¬ামা বদিউল আলম আহমদী, মুফতি কাজী আনোয়ারুল আলম ছিদ্দিকি, আল্ল¬ামা আশেকুর রহমান ও মাওলানা মুহাম্মদ ফোরকান। প্রধান আলোচক ছিলেন সংগঠনের মহাসচিব অধ্যাপক মুহাম্মদ ফোরকান মিয়া।
মাহফিল শেষে হুজুর ক্বেবলা দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি এবং দরবারের প্রতিষ্ঠাতা কাগতিয়ার গাউছুল আজমের দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন। এসময় হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসলমানের আমিন আমিন ধ্বনিতে এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের সূচনা হয়।


আরোও সংবাদ