পবিত্র আশুরা ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পালিত

প্রকাশ:| বুধবার, ৫ নভেম্বর , ২০১৪ সময় ০৭:৩৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশরেন মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম তাঁর নিজ মোস্তফা-হাকিম ভবনে কারবালার ঐতিহাসিক হৃদয়বিদারক মর্মান্তিক ঘটনা বিজড়িত পবিত্র আশুরা দিবসটি ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানাধির মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল খত্্মে কোরআন, খত্মে বোখারী, মিলাদ মাহফিল, বিশেষ মোনাজাত ও তবারুক বিতরণ। পবিত্র আশুরার তাৎপর্য বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম। আলোচনা করেন জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদের খতিব আল্লামা মুহাম্মদ জালালউদ্দিন আলকাদেরী, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ ছগির ওসমানী, শায়খুল হাদীস আল্লামা সোলাইমান আনছারী, হাফেজ মাওলানা আশরাফুজ্জামান আলকাদেরী। মোনাজাত পরিচালনা করেন জমিয়তুল ফালাহ জাতীয় মসজিদের খতিব মাওলানা জালালউদ্দিন আলকাদেরী। মিলাদ মাহফিল ও মোনাজাতে সিটি মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম, আলহাজ্ব মোস্তফা-হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবু তাহের, আলহাজ্ব আবুল কাসেম, আলহাজ্ব নিজামুল আলম, আলহাজ্ব মো. ফারুক আজম, আলহাজ্ব সাইফুল আলম, আলহাজ্ব সাইদুল আলম, বিশিষ্ট শিল্পপতি ও সমাজসেবক এম এস আলম, মো. মহসিন চৌধুরী, রাজনীতিক এ এম নাজিম উদ্দিন, কাউন্সিলর আলহাজ্ব বাবুল হক, নিয়াজ মোহাম্মদ খান, মোহাম্মদ তৈয়ব, চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আলী আহমেদ, সচিব রশিদ আহমদ, মেয়রের একান্ত সচিব মো. মনজুরুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আহমদুল হক, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এয়াকুব নবী, আনোয়ার হোসেন, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মন্নান ছিদ্দিকী সহ অন্যরা।

পবিত্র আশুরার তাৎপর্য বিশ্লেষণ করে প্রধান অতিথি সিটি মেয়র আলহাজ্ব মোহাম্মদ মনজুর আলম বলেন, এ দিনে হযরত ইমাম হুসাইন (রা:) এবং হযরত আলী (রা:)এর পরিবারের ১৭জন শিশু-কিশোর যুবক সহ মোট ৭২ জন মর্দে মুজাহিদ কারবালার প্রান্তরে ফোরাতের দু’কূল ছাপা নদীর কিনারায় এক বিন্দু পানি হতে বঞ্চিত হয়ে শাহাদাতের পেয়ালা পান করেছিলেন। তিনি বলেন, ১০ মহরমের সঙ্গে অসংখ্য বরকতময় ঘটনা, প্রিয় পয়গম্বদের প্রতি আল্লাহতায়লার অনুগ্রহ সহ নানা বেদনাবিধূর স্মৃতি জড়িত। মেয়র বলেন, আল্লাহরাব্বুল আলামিন এই মাসকে বিশেষ সম্মান দান করেছেন। মেয়র বলেন, আশুরা দিবস ও ঐতিহাসিক কারবালার ঘটনার সবচেয়ে বড় শিক্ষা হলো অন্যায়ের বিরুদ্ধে জিহাদ করা, সত্যের প্রতি অটল থাকা এবং দ্বিনী আদর্শ রক্ষার ক্ষেত্রে আল্লাহর বিধানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা। তিনি সকলকে আশুরা’র তাৎপর্য অনুধাবন করার আহ্বান জানান।