পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের প্রতিবাদ সভা

প্রকাশ:| রবিবার, ১৬ এপ্রিল , ২০১৭ সময় ০৯:০৭ অপরাহ্ণ

পটিয়া আসনের সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরী নিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সিটি মেয়র মহিউদ্দীন চৌধুরী কুটক্তি করায় প্রতিবাদ সভা করেছে পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। গত ১৪এপ্রিল বিকেলে পটিয়া পৌরসভাস্থ সংসদের কার্যালয়ে আয়োজিত সভায় বক্তব্য রাখেন পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মো. মহিউদ্দীন, চট্টগ্রাম জেলা সহকারী কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মো. বদিউজ্জামান, পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান, যুদ্ধকালিন কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা আহমদ নবী, পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সহকারী কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা জামাল উদ্দীন খান, মুক্তিযোদ্ধা জুগল সরকার, মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, মুক্তিযোদ্ধা মৃণাল কান্তি বড়–য়া, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা রনজিৎ কুমার দাশ, মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দীনসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের কমান্ডারবৃন্দ।
সভায় বক্তব্যে পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দীন বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় বর্তমান চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী দেরাদুনে ট্রেনিং শেষে দেশের মাটিতে আসার সময় আমাদের সাথে এসেছিলেন এবং যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন। যুদ্ধের শেষে তিনি আওয়ামী লীগের নেতা হিসেবে এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র থাকা অবস্থায় কোটি কোটি টাকা তছরূপ করে নিজে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। অথচ যুদ্ধের সময় আমরা যারা তাঁর সাথে ছিলাম, তাঁকে আশ্রয় দিয়েছিলেম। যারা উনাকে সহযোগিতা করেছেন তাদের একটু খবরও রাখেননি বরঞ্চ তাদেরকে দূরে ঠেলে দিয়েছেন। এছাড়া জহুর হকার মার্কেট নিয়ে মার্কেটের দোকানের টাকা তছরূপে খবরও চট্টগ্রামবাসীর অজানা নয়। এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী পটিয়ার সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে যেসব কটুক্তি করেছেন তা ভূতের মুখে রাম নামে সমান। তাই এধরনের অন্যায় কাজের তীব্র প্রতিবাদ জানানো হচ্ছে।
প্রতিবাদ সভার শুরুতে নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময় করে মুক্তিযোদ্ধারা। এছাড়াও পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা মো. মহিউদ্দীন চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে যাওয়ায় তাঁর জন্য দোয়া মোনাজাত করা হয়। (বিজ্ঞপ্তি)