পটিয়া আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত করার নির্দেশ

প্রকাশ:| শনিবার, ৪ নভেম্বর , ২০১৭ সময় ০৮:২২ অপরাহ্ণ

আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত করার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরামর্শে চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম এই নির্দেশনার কথা স্থানীয় নেতাদের জানিয়েছেন।

পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের বিরোধ নিরসনে ৮ নভেম্বর ঢাকায় বৈঠক ডাকা হয়েছে।

সূত্রমতে, ২০১৪ সালে তৃণমূল ভোটে উপজেলা আ’লীগের কমিটি গঠন হয়। এতে সভাপতি হন রাশেদ মনোয়ার ও সাধারণ সম্পাদক হন নাসির উদ্দিন। নিয়ম অনুযায়ী আগের কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় নতুন কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ১১ নভেম্বর এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

কিন্তু সম্মেলনকে কেন্দ্র করে পটিয়ায় আওয়ামী লীগ দুইভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। একটি অংশ সম্মেলনের ঘোষণা দিলেও অপর অংশ একইদিন কর্মী সম্মেলনের ডাক দেয়।

বিরোধপূর্ণ পরিস্থিতি সামলানোর বিষয়টি উঠে আসে শনিবার (০৪ নভেম্বর) সকালে আনোয়ারায় আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর স্মরণসভায় উপস্থিত কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে। এনামুল হক শামীম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানকে নিয়ে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কথা বলেন। এসময় পটিয়ার সংসদ সদস্য শামসুল হক চৌধুরীও ছিলেন।

জানতে চাইলে এনামুল হক শামীম বলেন, পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগে ঝামেলা আছে। এই মুহুর্তে সম্মেলন করা ঠিক হবে না। সম্মেলন স্থগিত করতে বলেছি।

‘৮ নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক, পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উভয়পক্ষের নেতাদের ঢাকায় আসতে বলেছি। সেখানে আমাদের যুগ্ম সম্পাদক হানিফ ভাই (মাহবুবুল আলম হানিফ) এবং আমি থাকব। সেখানে আমরা তাদের সঙ্গে আলাপ করে একটা সমাধান করব। ’ বলেন শামীম
পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থগিত
ঢাকায় আসেন। আমরা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে একটা সিদ্ধান্ত নেব।
এর আগে গত ৭ মে পটিয়া উপজেলায় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু পটিয়ার সাংসদ সামশুল হক চৌধুরীর সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান নেতাদের মতদ্বৈততার করেণ সম্মেলন স্থগিত করা হয়। সেসময় রমজানের পর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করার কথা বলা হয়েছিল।

জানতে চাইলে সংসদ সদস্য শামসুল হক বলেন, হানিফ ভাই এবং শামীম ভাই আমাকে বলেছেন, তাদের (বর্তমান কমিটি) আপনি রাখবেন না, সেটা ঠিক আছে। তবে তাদের বিদায়টা যাতে সুন্দরভাবে হয়, সেজন্য আপনারা ৮ তারিখ ঢাকায় আসেন।  আমরা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে একটা সিদ্ধান্ত নেব।

এর আগে গত ৭ মে পটিয়া উপজেলায় সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল।  কিন্তু পটিয়ার সাংসদ সামশুল হক চৌধুরীর সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান নেতাদের মতদ্বৈততার করেণ সম্মেলন স্থগিত করা হয়।  সেসময় রমজানের পর সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করার কথা বলা হয়েছিল।