পটিয়ায় ছাত্রদল নেতার বাড়ি থেকে গ্রেফতার-১

প্রকাশ:| সোমবার, ১১ সেপ্টেম্বর , ২০১৭ সময় ০৮:৪৪ অপরাহ্ণ

পটিয়া প্রতিনিধি
পটিয়া উপজেলার জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের এয়াকুবদন্ডীতে দক্ষিণ জেলা ছাত্রদল নেতা গাজী মো: মনিরের বাসায় গত রবিবার রাতে অভিযান চালিয়েছে পটিয়া থানা পুলিশ। গাজী মনির পটিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক ও দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সদস্য। এসময় তাকে না পেয়ে পুলিশ তার ঘরের বিভিন্ন কক্ষে তলাশী চালায় এবং তার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য জানতে চেয়েছে বলে তার পরিবার সূত্রে জানাযায়।
পরে একই এলাকা থেকে গাজী মো: হোসেন পুত্র ছাত্রদল কর্মী শওকত হোসেন মেনন (২৪) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাকে গত ৫ মাস পূর্বে উপজেলার শান্তির হাট এলাকায় ওয়াহাবী-সুন্নি সংঘর্ষের মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে গতকাল সোমবার জেল হাজতে প্রেরণ করে। একই রাতে উপজেলার হাবিলাস দ্বীপ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি মো: দিদারুল ইসলামের বাসায়ও তল্লাশী চালানো হয়। তবে এ সময় তিনি বাড়ীতে ছিলেন না বলে জানাযায়।
গাজী মনির জানান, তার বিরুদ্ধে দু’একটি রাজনৈতিক মিথ্যা মামলা রয়েছে। এসব মামলায় তিনি জামিনও রয়েছেন। পুলিশ কি কারণে তাকে খুজছে এবং তার ঘরে তল্লাশী চালিয়েছে সে বিষয়ে তিনি বলেন, রাজনৈতিক হয়রানীর উদ্দেশ্যে তার ঘরে পুলিশ তল্লাশী চালিয়েছে।
এ বিষয়ে পটিয়া থানার ওসি শেখ নেয়ামত উল্লাহ জানিয়েছেন, সুনিদিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কারো ঘরে তল্লাশী কিংবা গ্রেফতার করা হয়না। পটিয়ায় কাউকে রাজনৈতিক পরিচয়ে হয়রানী বা গ্রেফতার করা হয়নি। সুনিদিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়েছে।
এদিকে গাজী মনিরের বাসায় পুলিশের অভিযান ও হযরানী এবং ছাত্রদল নেতাকে গ্রেফতার ও বাসায় পুলিশী তল্লাশীর মাধ্যমে হয়রানীর প্রতিবাদ জানিয়েছেন পটিয়ার সাবেক সাংসদ গাজী মোহাম্মদ শাহজাহান জুয়েল, উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবদুল জলিল, সেক্রেটারী খুরশিদ আলম, দক্ষিণ জেলা বিএনপি নেতা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম নেছার, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ন আহবায়ক জমির উদ্দিন মানিক। প্রতিবাদ লিপিতে নেতৃবৃন্দ বলেন ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা ও বাসায় পুলিশী তল্লাশীর নামে হয়রানীর করা হচ্ছে। অবিলম্বে ছাত্রদল নেতার মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ হয়রানীর বন্দের আহবান জানান।


আরোও সংবাদ