পটিয়ায় স্মরণসভায় চেয়ারম্যান-সভাপতি গ্রুপের সংঘর্ষ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ২৫ নভেম্বর , ২০১৬ সময় ০৯:২৭ অপরাহ্ণ

%e0%a6%87%e0%a6%89%e0%a6%b8%e0%a7%81%e0%a6%ab%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%ae%e0%a6%b0%e0%a6%a3%e0%a6%b8%e0%a6%ad%e0%a6%be

পটিয়া প্রতিনিধি :
পটিয়ায় মুক্তিযোদ্ধা এস এম ইউসুফের স্বরণসভায় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এবং তাদের সমর্থক দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গত ইউপি নির্বাচনের সময় ইব্রাহিম বাচ্চু ও উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কোরবান আলীর পক্ষের মধ্যে বিরোধকে কুসুমপুরা ইউনিয়নের গতকাল নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইব্রাহিম বাচ্চু ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কোরবান আলী ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। পরে পটিয়া থানা পুলিশ ও এমপি উপস্থিত হয়ে উভয় পক্ষকে শান্ত করেন।

জানা গেছে, গত ২৯ মে পটিয়া উপজেলার ইউনিয়ন সমূহের মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কোরবান আলী সমর্থিত গ্রুপ আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী ইব্রাহিম বাচ্চুর বিরোধিতা করেন। এ বিরোধিতার জের ধরে নির্বাচন পরবর্তীতে এখনো রেশ রয়ে যায়। গতকাল এস এম ইউসুফরে স্মরণসভার আয়োজন করে পৌরসভা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ। পৌর এলাকার ইন্দ্রাপুলস্থ একটি কমিউনিটি সেণ্টারে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কোরবান আলী সভার শুরুতে মঞ্চে কুসুমপুরা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইব্রাহিম বাচ্চুকে উঠতে বাধা দেয়। পরে সভার শুরু হলে তাতে কুসুমপুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইব্রাহিম বাচ্চুকে স্বাগতিক কুসুমপুরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে সম্মোধন না করায় তার এলাকার বাসিন্দা ছাত্রলীগ সভাপতি কোরবান আলীর সাথে চেয়ারম্যান বাচ্চু ও তার সমর্থিতদের বাক বিতন্ডা হয়। এর এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান সমর্থিরা সভা মঞ্চ থেকে নামিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কোরবান আলীকে মারধার করে এবং কাপড়ছোপড় ছিড়ে ফেলে। এ ঘঠনাকে কেন্দ্র উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে উপস্থিত পুলিশ উভয় পক্ষকে নিবৃত করেন। পরে একই হলে অবস্থানরত এমপি সামশুল হক চৌধুরী ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা এসে উপস্থিত নেতাকর্মীদের শান্ত করেন। সমাবেশে বিশৃঙ্কলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে এমপি সামশুল হক চৌধুরী ঘোষণা দেন। এরপর পুনরায় নির্ধারিত সমাবেশ শুরু হয়।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে কুসুমপুরা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ইব্রাহিম বাচ্চু বলেন, সামান্য ভূল বুঝাবুঝির ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে আমার আর কোন অভিযোগ নেই। তাই থানায় বা অন্য কোথাও কোন অভিযোগ করা হয় নি।
উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি কোরবান আলী বলেন, চেয়ারম্যানের সাথে বাড়াবাড়ি থেকে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়েছে। ছাত্রলীগ নেতামকর্মীরা চেয়ারম্যানকে পাল্টা মার দিয়ে এর জবাব দিয়েছে।


আরোও সংবাদ