পটিয়ার ১৭ ইউনিয়নে আ’লীগে নৌকার মাঝি আড়াই শতাধিক

প্রকাশ:| রবিবার, ৩ এপ্রিল , ২০১৬ সময় ০৯:২৯ অপরাহ্ণ

আ’লীগ - ইউপি

পটিয়া প্রতিনিধি॥
পটিয়া উপজেলার আসন্ন ইউপি নির্বাচনে ১৭ ইউনিয়ন থেকে আওয়ামীলীগে নৌকার মাঝি হতে দৌড়ঝাপ শুরু করেছে আড়াই শতাধিক আওয়ামীগ নেতাকর্মী। আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী প্রায় আড়াই শতাধিক প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দলীয়ভাবে জমাপ্রদান করা হয়। গত শনিবার পটিয়া রাইসা কমিউনিটি সেন্টারে উৎসবমুখর পরিবেশে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা প্রদান করেন।
পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রাশেদ মনোয়ারের সভাপতিত্বে আয়োজিত মনোনয়ন জমাদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পটিয়ার এমপি সামশুল হক চৌধুরী। উপজেলা সেক্রেটারী নাছির উদ্দিনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, পটিয়া উপজেলা নির্বাচনের সমন্বয়কারী জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট জসিমউদ্দিন খান, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা সাবেক এমপি চেমন আরা তৈয়ব, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা ডা. তিমির বরণ চৌধুরী, প্রদীপ দাশ, আকম সামশুজ্জামান চৌধুরী, দেবব্রত দাশ, এডভোকেট আবদুর রশিদ, একেএম আবদুল মতিন চৌধুরী, বিজন চক্রবর্তী, নাসির আহমদ, মুছা চেয়ারম্যান, সেলিম নবী, আইয়ুব আলী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। তারা আগামী দুইদিনের মধ্যে প্রার্থীরা তাঁদের সমন্বয়ের মাধ্যমে একক প্রার্থী নির্বাচনে ব্যর্থ হলে জেলা নির্বাচনী বোর্ডের সমন্বয়ে দলের প্রার্থীতা চূড়ান্ত করে কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে প্রেরণ করা হবে।
এ ব্যাপারে বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রার্থী জমা দিয়েছেন তারা হচ্ছেন কুসুমপুরা ইউনিয়নের ১১জন, তারা হচ্ছেন জাকারিয়া ডালিম, রফিকুল ইসলাম মনা, জসিম উদ্দিন, মাহমুদুল হক, নাছির উদ্দিন, ইব্রাহিম বাচ্চু, মো. রফিক, এমরান, সরোয়ার মেম্বার, এম হোসেন রানা। জিরি ইউনিয়নের ১৪ জন। তারা হচ্ছেন, বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কালাম ভোলা, আজিমুল হক, মুক্তিযোদ্ধা এমএ হাকিম, মন্জু মিয়া, আবদুল্লাহ আল হারুন, রবিউল আলী, শাহাজাহান বাহাদুর, হাছান মেম্বার, মো. ইউনুছ, জসিম উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল, মহসিন। জঙ্গলখাইন ইউনিয়নের ১৩ জন। তারা হলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন ফরিদ, গাজী মো. ইদ্রিস, শফিকুল মান্নান, শফিকুল ইসলাম, প্রজ্ঞাজ্যতি লিটন বড়–য়া, অসিত বড়–য়া, জাফর আহমদ ভুলু, আবুল কালাম, মো. ফোরকান, মর্তুজা কামাল মুন্সী। কোলাগাঁও ইউনিয়নের ১৪জন। তারা হলেন মো: ফারুক, এম.এ রহিম, জসিম উদ্দীন, মাহমুদুল হক, আহমদ নূর, বদিউল আলম তুষার, হাজী ওসমান গণি, নাসির উদ্দীন, জাহাঙ্গীর আলম, জয়নাল আবেদীন, খলিলুর রহমান, আনসুর আলী। কাশিয়াইশ ইউনিয়নে ৫জন। কাশিয়াইশ ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল কাশেম, জহির উদ্দীন চৌধুরী, জামালুস সত্তার, জহির উদ্দীন, রতন মল্লিক মিঠু। আশিয়া ইউনিয়নে ৩ জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান এম.এ. হাসেম, বশির উদ্দীন, বেলাল উদ্দীন। বড়লিয়া ইউনিয়নে ১৩ জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান শাহিনুল ইসলাম শানু, ইউনুস তালুকদার, নুরুল আবছার, সাজ্জাদ হোসেন, ছৈয়দ মোরশেদ, দিদারুল আলম, মফিজুর রহমান, রাশেদ বিন-কাদের, মোরেশদ আলম চৌধুরী, সুপ্রিয় বড়–য়া, উজ্জ্বল চৌধুরী চন্দন। খরনা ইউনিয়নে ৪জন। তারা হলেন মাহবুবুল আলম, শহীদুল আলীম মঞ্জু, আবদুল হান্নান লিটন, রিজোয়ানুল হক দিদার। কচুয়াই ইউনিয়নে ৯জন। তারা হলেন সাবেক চেয়ারম্যান আবুল খালেক, ইনজামুল হক জসিম, সাজেদা বেগম, ঋষি বিশ্বাস, আবদুল মান্নান, আবু বক্কর, এনাম মজুমদার, বদিউল আলম, মো: তাহের। হাইদগাঁও ইউনিয়নে ৭জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান
মুক্তিযোদ্ধা মো: মহিউদ্দীন, জীতেন কান্তি গুহ, আহমদ নূর, সিরাজুল ইসলাম মাষ্টার, বি এম জসিম, মো: ফয়সাল, মো: করিম। কেলিশহর ইউনিয়নে ১৩জন। তারা হলেন ইউনুস মেম্বার, সরোজ সেন নান্টু, ছিদ্দিক মেম্বার, নিখিল দে, আবুল হোসেন মাখনসহ অন্যরা। ধলঘাট ইউনিয়েন ৬জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা পটিয়া উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি ছালামত উল্লাহ মল্ল, রবিউল হোসেন রুবেল, রনবীর ঘোষ টুটুন, ছৈয়দ আহম্মদ, মো: ছৈয়দ, জহির উদ্দীন সানু। ছনহরা ইউনিয়নে ২জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান কামাল উদ্দীনও মো: সরওয়ার। ভাটিখাইন ইউনিয়নে ৮জন। তারা হলেন মুক্তিযোদ্ধা মৃণাল কান্তি বড়–য়া, মাষ্টার সন্তোষ বড়–য়া, আবু ছালেহ মো: শাহরয়িার শাহরু, বখতিয়ার উদ্দীন, কাজী জিল্লুর রহমান, জসিম উদ্দীন, উজ্জ্বল দে, মোরশেদ। দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নে ৪জন। তারা হলেন বতর্মান চেয়ারম্যান মো: ছৈয়দ, সাবেক চেয়ারম্যান মো: সেলিম, রাজু দাশ হিরো, আমিন মেম্বার। হাবিলাসদ্বীপ ইউনিয়নে ১৩জন। তারা হলেন আবু ছালেহ চৌধুরী, মৃদুল নন্দী, মো: সেলিম, ফজলুল কবির কুমার, আজগর আলী বাহাদুর, শেখ আহম্মদ, নাসির উদ্দীনসহ অন্যরা। শোভনদন্ডী ইউনিয়েনে ৭জন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান মো: এহসান, পটিয়া উপজেলা আ’লীগের সেক্রেটারি নাসির উদ্দীন, যদু রঞ্জন চৌধুরী, বরুণ মিত্র, আনম সেলিম, মাহবুবুল কবির, আবুল হাসান খোকন। উল্লেখ্য এতে তৃণমুল নেতাকর্মীদের কোনো মতামত নেয়া হয় নি।