ন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্ট শুরু

প্রকাশ:| বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ , ২০১৭ সময় ০৭:০৩ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) ১৫০ টি দলের অংশগ্রহণে শুরু হয়েছে জাতীয় প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা (এনসিপিসি)। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এই প্রতিযোগিতায় সেখানে দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নিয়েছেন।

‘ন্যাশনাল কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং কনটেস্ট’ শীর্ষক জাতীয় পর্যায়ের এই প্রতিযোগিতার আসর হিসেবে চুয়েটকে নির্ধারণ করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) দুপুর ২ টায় চুয়েটের অডিটোরিয়ামে দুদিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন চুয়েটের উপাচার্য ড.মো.রফিকুল আলম। প্রতিযোগিতা চলবে শুক্রবার বিকাল ৩ টা পর্যন্ত ।

চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক মীর মুহাম্মদ সাক্কী কাওসার বাংলানিউজকে বলেন, প্রতিবছর দেশের সব পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি কলেজ এবং স্কুলের শিক্ষার্থীরা প্রোগ্রামিং টিম নিয়ে এই জাতীয় প্রতিযোগিতা অংশ নেয়। এই প্রতিযোগিতার আগে অনলাইনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের ১ হাজার ৮৫ টি টিমের মধ্যে ১৫০ টি দলকে বাছাই করা হয়।

তিনি জানান, দুদিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের প্রথমদিন বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ‘মক কনটেস্ট’ অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে মূল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা।

এরপর সন্ধ্যা ৬ টায় লালখান বাজারে ইনিস্টিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইইবি) ভবনে প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হবে।

কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও অনুষ্ঠানে দায়িত্বে থাকা সীমান্ত পাল বাংলানিউজকে বলেন, প্রতিযোগিতায় দেশের ৬৩ টি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়, ২ টি কলেজ এবং ১ টি উচ্চ বিদ্যালয়ের একাধিক দল অংশ নিয়েছে। প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের জন্য রয়েছে ২৬ টি পুরস্কার। এছাড়া ৮ বিভাগের জন্য ৮ টি, মেয়েদের জন্য ১ টি, স্কুল ও কলেজের জন্য রয়েছে ১ টি করে পুরস্কার।

শুক্রবার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। বিশেষ অতিথি থাকবেন চুয়েট উপাচার্য ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, বুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ, বেসিস সভাপতি মোস্তফা জব্বার, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের তত্বাবধায়ক পরিচালক স্বপন কুমার সরকার, বিডিওএসএন সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

এবারের আয়োজনের স্পন্সর হিসেবে রয়েছে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, আইপিভিশন লিমিটেড এবং শিওর ক্যাশ।


আরোও সংবাদ