নৌকা প্রতীকে এড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীকে চায় দুই দ্বীপের মানুষ

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| বুধবার, ১০ অক্টোবর , ২০১৮ সময় ০৬:৫৮ অপরাহ্ণ

লিটন কুতুবী।
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই জনমনে প্রার্থী যাচাই বাচাইয়ের ঝড় উঠেছে। সরকারের উন্নয়ন আর অর্থনৈতিক চাকা পরিবর্তনে যে সরকার জনমনে স্বস্তি ফিরে এনে দিয়েছে সে সরকারের যোগ্য প্রার্থী খোঁজে বেড়াচ্ছে ভোটাররা।
দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও সাধারণ ভোটারগণ কেমন প্রার্থীকে বিবেচনায় রাখছে তা মাঠ জরীপ করলে বেরিয়ে আসে। তারই ধারাবাহিকতায় আওয়ামীলীগের র্দূ’দিনের নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে দলের হাল ধরে রেখেছিলেন। এরই মধ্যে ২০০১ সনের ১ অক্টোবর আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে আলহাজ এড্ ফরিদুল ইসলাম চৌধূরী সে সময়ে বিএনপি সরকার শাসন আমলে কক্সবাজার -২ কুতুবদিয়া- মহেশখালী আসনে নির্বাচন করে ৬৫ হাজার ভোট পেয়েছিলেন। ক্ষমতা আর পেশী শক্তি দিয়ে বিএনপি প্রার্থীকে বিজয়ী করার জন্য মহেশখালীতে প্রকাশ্যে কেন্দ্র দখল করে এক লক্ষ ৪৯ হাজার ৫শ ভোট কেটে নিয়ে বিএনপির প্রার্থীকে বিজয়ী ঘোষনা করেন। তৎসময়ে কুতুবদিয়া – মহেশখালী আসনের মোট ভোটার ছিল ২লক্ষ ১২ হাজার। অবশ্য ২০০১ সনে ৩ অক্টোবর আওয়ামীলীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা আর্ন্তজাতিক ও জাতীয় প্রচার মাধ্যম সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কুতুবদিয়া-মহেশখালী আসনে ভোট ডাকাতির বিষয় তুলে ধরেন।
তবে আওয়ামীলীগের র্দূ-দিনের সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে চ্যালেঞ্জের মুখে থেকে এখনো পর্যন্ত আওয়ামীলীগের পক্ষে নিবেদিত প্রাণে দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। সে সময়ে থেকে এ পর্যন্ত দলীয় কর্মসূচী ছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজে এবং সামাজিক কাজে জড়িত থেকে সাধারণ মানুষের মন জয় করে বেঁেচ আছেন তিনি।
জানা গেছে, আলহাজ এড্ ফরিদুল ইসলাম চৌধূরী ১৯৯০ সনে জাতীয় পার্টির শাসন আমলে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আলহাজ মনজুর আলম সিকদারের বিপক্ষে ভোট করে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিল।
তিনি দলীয় ছাড়াও ব্যাক্তিগত ইমেজে মানুষের মনে আস্তা অর্জন করে জনগণের প্রতীক আলহাজ এড্ ফরিদুল ইসলাম চৌধূরী ১৯৯৭ সনে বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিল।
বিগত ২০০৯ সনে কক্সবাজার জেলা আইনজীবি (বার) সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন। সর্বশেষ ২০১৬ সনে বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগের দলীয় নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
বিগত ১৯৬৮ সন থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশের বৃহত্তম দল আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থেকে বর্তমানে কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি পদে আসীন আছেন।
সামাজিক সংগঠন ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত থেকে সেবামুলক কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বড়ঘোপ ইসলামিয়া ফাযিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি,কুতুবদিয়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং কুতুবদিয়া মহিলা ডিগ্রি কলেজের সাবেক প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি।
কুতুবদিয়া দ্বীপের সম্ভ্রান্ত মাতবর বাড়ির সন্তান হলেও দীর্ঘ প্রায় ৩৪ বছর কক্সবাজার জেলা জজ কোর্টে আইনজীবি পেশায় নিয়োজিত থেকে কুতুবদিয়া-মহেশখালী দুই দ্বীপের মানুষের মনে তার উপকার আর কাজে সাড়া জাগিয়ে আছেন।
এ দুই দ্বীপের মানুষ আলহাজ এড্ ফরিদুল ইসলাম চৌধূরীকে আসন্ন ১১তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-২ কুতুবদিয়া- মহেশখালী আসনে আ’লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে মাঠে ময়দানে তাহাকে প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় ভোটারগণ।