নুরু হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ

প্রকাশ:| শুক্রবার, ৩১ মার্চ , ২০১৭ সময় ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, নুরুল আলম নুরু একজন মেধাবী ছাত্রনেতা। হাঁটি হাঁটি পা পা করে ছাত্রদলের তৃণমূল থেকে নেতৃত্ব দিয়ে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব দিয়েছেন। তার মত একজন ছাত্রনেতাকে ঘর থেকে পুলিশের পোশাক পড়ে তুলে নিয়ে বিচার বর্হিভুতভাবে হত্যা করে নদীর পাড়ে ফেলে রাখার মধ্য দিয়ে সরকার জঙ্গিবাদকে উষ্কে দিচ্ছে। আমরা অতীতে যে কথা বলে এসেছি এই সরকারের আমলে ঘরে বাইরে কেউ নিরাপদ নয়, সেটি আজকেই প্রমাণ হয়েছে। সরকার যেমনি ভাবে ইলিয়াছ আলী, চৌধুরী আলম, বাছা চেয়ারম্যানসহ অনেককে গুম করেছে যেমনি দিন দুপুরে হত্যা খুন করছে ঠিক তেমনিভাবে আজ ছাত্রনেতা নুরুল আলম নুরুকে হত্যা করেছে। সরকার আজ বিএনপিকে তৃণমূল থেকে ধ্বংস করে সরকারের জানানো গুছানো নীল নক্শার নির্বাচন করার জন্য এক কাজটি করছে। ডা. শাহাদাত হোসেন আরও বলেন, বিএনপি’র নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দায়ের করে গ্রেপ্তার করে হত্যা করে গুম করে সরকার যতই ষড়যন্ত্র করুক বিএনপিকে কখনো ধ্বংস করা যাবে না। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপি এগিয়ে যাবে। তিনি অনতিবিলম্বে নুরুকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে বিচার বর্হিভুতভাবে হত্যা করেছে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে খুণিদের অবিলম্বে বিচার দাবি এবং এ হত্যার বিরুদ্ধে দল মত নির্বিশেষে ছাত্রজনতাকে ঐক্যদ্ধ হয়ে রাজপথে দুর্বার আন্দোলন করার আহ্বান জানান।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, নুরুকে হত্যার মধ্য দিয়ে সরকার যে হত্যার রাজনীতি করে সেটি আজ প্রমাণ হয়েছে। নুরুর মত হাজার হাজার নুরুকে হত্যা করলেও সরকারের শেষ রক্ষা হবে না। বিএনপি’র নেতাকর্মীরা গ্রেপ্তার হামলা-মামলা, খুণ, গুমকে ভয় পায় না। বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে রাজপথে দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার সরকারের পতন অবশ্যই করবে। আবুল হাশেম বক্কর আরও বলেন, তিনি চট্টলার ছাত্র নেতৃবৃন্দকে সকল ভেদাবেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। নুরুর রক্ত নিয়ে শপথ করে নুরুর আদর্শকে সামনে রেখে তার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রাজপথের সকল আন্দোলনকে সফল করার আহ্বান জানান।
অদ্য বিকাল ৪ ঘটিকার সময় নাসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সাধারণ সম্পাদক উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল আলম নুরু হত্যার প্রতিবাদের জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর দক্ষিণ জেলার যৌথ উদ্যোগে তাৎক্ষণিক এক সমাবেশ চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক গাজী মোঃ সিরাজ উল্লাহর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলুর সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, চাকসু’র ভিপি মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এড. ইফতেখার হোসেন মহসিন, উত্তর জেলা বিএনপি নেতা নুরুল আমিন, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, যুবদল সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কামরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সহ-সভাপতি সরওয়ার উদ্দিন সেলিম, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক জসিম উদ্দিন। এতে আরও বক্তব্য রাখেন, উত্তর জেলা ছাত্রদলের সভাপতি জাহিদ আবসার জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম জনি, সিনিয়র সহ-সভাপতি আনসুর উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, জিয়াউর রহমান জিয়া, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক মোশারফ হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক জালাল উদ্দিন সোহেল, আলী মর্তুজা, সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদ খান, দক্ষিণ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আজগর হোসেন, ফজলুল কবির ফজু, কোতোয়ালী থানার সাধারণ সম্পাদক ছাদেকুর রহমান রিপন, বাকলিয়া থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকিম মাহমুদ প্রমুখ।
আগামীকাল চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর দক্ষিণ ছাত্রদলের উদ্যোগে নাসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ে ছাত্রনেতা নুরুল আলম নুরু হত্যার প্রতিবাদে বিকাল ৪ ঘটিকার সময় সংবাদ সম্মেলন, শনিবার উত্তর দক্ষিণ মহানগরীর উদ্যোগে প্রতিটি থানায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ ও শনিবার বিকাল ৪ ঘটিকার সময় চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপির যৌথ উদ্যোগে নাসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ে নুরু হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ। উক্ত কর্মসূচিকে সকলকে সফল করার আহ্বান জানান চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ জেলার নেতৃবৃন্দ আহ্বান জানান।


আরোও সংবাদ