নিহতের ঘটনায় মামলা, লিয়াকত প্রধান আসামি

প্রকাশ:| সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারি , ২০১৭ সময় ০৯:১৬ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে ডাকা মতবিনিময় সভায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহতের ঘটনায় আদালতে একটি মামলা হয়েছে।
নিহত মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী রুমি আক্তার বাদী হয়ে সোমবার চট্টগ্রাম সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিপলু কুমার দে’র আদালতে মামলাটি করেন।

মামলায় সাবেক চেয়ারম্যান লিয়াকতকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। এছাড়া আরও ২৯ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১০০ থেকে ১৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

গত বুধবার সংঘর্ষের পরদিন বাঁশখালী থানায় মামলা করতে গেলেও পুলিশ তা না নেওয়ায় আদালতে মামলাটি করা হয়েছে বলে বাদীর আইনজীবী কফিল উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “আদালতে মামলাটি এজাহার হিসেবে গ্রহণের জন্য বাঁশখালী থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন।”

গত বুধবার দুপুরে বাঁশখালী উপজেলার গণ্ডামারা ইউনিয়নের পশ্চিম বড়ঘোনায় এস আলম গ্রুপের নির্মাণধীন বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকার উন্মুক্ত স্থানে সভার সময় স্থানীয় দুই পক্ষের সংঘর্ষে আলী (৩৫) নিহত হন।

গণ্ডামার ইউনিয়নের পশ্চিম বড়ঘোনা এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে মোহাম্মদ আলী। দুই মেয়ে এক ছেলে সন্তানের জনক আলী সিএনজি অটোরিকশা চালানোর পাশাপাশি স্থানীয় বাজারে শুঁটকির ব্যবসা করতেন।

বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরোধিতাকারী ‘বসতভিটা রক্ষা কমিটির’ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান লিয়াকত এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা নুরুল মোস্তফা সংগ্রামের অনুসারীরা সংঘর্ষে জড়িয়েছিলেন বলে পুলিশ জানায়।

গত বছরের এপ্রিলে স্থানীয়দের সঙ্গে বিদ‌্যুৎ কেন্দ্রের কর্মী ও পুলিশের সংঘর্ষে চারজন নিহত হওয়ার পর থে সেখানে যৌথবাহিনী দায়িত্ব পালন করছে। যৌথবাহিনীর নেতৃত্বে থাকা নৌবাহিনীর কর্মকর্তা কমডোর এম সোহায়েল স্থানীয়দের এই মতবিনিময় সভা ডেকেছিলেন।


আরোও সংবাদ