নির্যাতনের আভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন

প্রকাশ:| রবিবার, ১৯ মার্চ , ২০১৭ সময় ১১:৫১ অপরাহ্ণ

আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। ১৯৯৯ সাল থেকে বিবিআনা গ্যাস প্রকল্পে ম্যানটেইন্যান্স সুপারভাইজার হিসাবে কর্মরত থাকিয়া এবং আমার স্ত্রী সেলিনা ইয়াছমিন একজন ব্যবসায়ী ও আয়করদাতা হিসাবে পেশারত আছি। আমার কষ্টার্জিত আয়ের টাকা দিয়া আমার উপরোক্ত টিকানার পৈত্রিক নিবাসের পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ পাহাড়তলী মৌজার বি.এস ১৫২২ নং খতিয়ান দাগ নং- ৫৯৩২ দাগের ৪ কাটা জায়গা তৎ প্রকৃত মালিক জনৈক আমজাদ হোসেন চৌধুরী গং এর নিকট হইতে ১২/০৪/১২ইং তারিখ ৬০৬৮ নং রেজিষ্ট্রি কবলামূলে খরিদ করিয়া ভোগ দখলরত আছি এবং আমার নামে নামজারী খতিয়ান-৪০১ সৃষ্টি এবং সন সন খাজনা পরিশোধ করিয়া আসিতেছি। আমি পেশাগত কারণে চট্টগ্রামের বাইরে অবস্থান করিতে হয় বিধায় ভূমিদস্যু মাহবুবুল আলম প্রঃ আরএসপিএস মাহবুব, পিতা- মৃত মোঃ হোসেন, সাং- দক্ষিণ পাহাড়তলী, ঝর্নাপাড়া, থানা- ডবলমুরিং, জেলা-চট্টগ্রাম একই এলাকার লোক হিসাবে আমার উপরোক্ত খরিদা জায়গায় তার ভাঙ্গারী ব্যবসার বিভিন্ন মালামাল সাময়িকভাবে রাখার জন্য তথায় থাকা আমার পরিবারের অপরাপর সদস্য এবং পরবর্তীতে আমার নিকট হইতে মৌখিক অনুমতি নিয়া মালামাল স্তুপ করিয়া রাখে। আমি সম্প্রতি উপরোক্ত জায়গায় সীমানা দেয়াল নির্মাণ কাজ শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিয়া উক্ত ভূমিদস্যু মাহবুবুল আলম প্রঃ আরএসপিএস মাহবুবকে তার রাখা ভাঙ্গারী মালামাল সমূহ সরাইয়া ফেলার জন্য মৌখিকভাবে বলিলে ভূমিদস্যু মাহবুবুল আলম প্রঃ আরএসপিএস মাহবুব আকস্মিকভাবে তার রূপ পরিবর্তন করিয়া আমি এবং আমার পরিবারের প্রতি তার রাখা ভাঙ্গারী মালামাল সমূহ সরানোর বিপরীতে ১০,০০,০০০/- (দশ লক্ষ) টাকা দাবী করিয়া আসিতে থাকে এবং উক্ত দাবীর সহিত ভূমিদস্যু ফাহিম উদ্দীন, পিতা- মৃত রইস উদ্দীন, সাং- দক্ষিণ পাহাড়তলী, ঝর্ণাপাড়া, আব্দুল গনি রোড, ডবলমুরিং, চট্টগ্রাম প্রত্যক্ষভাবে ইন্ধন দিয়া ভূমিদস্যু মাহবুবুল আলম প্রঃ আরএসপিএস মাহবুব কে আরো খেপাইয়া হিংস্র করে তোলে এবং তাদের সংগীয় অপরাপর সন্ত্রাসী ও ভূমিদস্যু (১) ফাহিম উদ্দীন, পিতা- মৃত রইস উদ্দীন, সাং- দক্ষিণ পাহাড়তলী, ঝর্ণাপাড়া, আব্দুল গনি রোড, ডবলমুরিং, চট্টগ্রাম, (২) মামুন (৩) রনি, (৪) মুরাদ, পিতা-মৃত বদি জোং সর্ব সাং- ১২নং সরাইপাড়া (ঝর্নাপাড়া), ডবলমুরিং, চট্টগ্রাম প্রায়শঃ আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যদেরকে অপহরণ পূর্বক খুন, গুম, জখম ও মিথ্যা মামলা দিয়া হয়রানী করিবে মর্মে হুমকি প্রদান করিয় আসিতেছেন। উক্ত ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণ সম্প্রতি আমার পরিবারের শিশু সন্তানদের অপহরণের হুমকি প্রদান করছেন। উক্ত ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের মারাত্মক হুমকির প্রেক্ষিতে আমি এবং আমার পরিবার শংকিত এবং আতঙ্কিত জীবন যাপন করছি। উক্ত ভূমিদস্যু ও ব্যক্তিগণের বিভিন্ন ধারাবাহিক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অংশ হিসাবে গত ১৬/০৩/১৭ইং তারিখ দিবাগত রাত অনুমান ৩.০০টায় অর্থাৎ ১৭/০৩/১৭ইং তারিখ অতর্কিত ৬০-৭০ জন সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজন নিয়া আমার উপরোক্ত খরিদা জায়গার পার্শ্ববর্তী আমার পৈত্রিক খরিদা জায়গায় আকস্মিকভাবে প্রবেশ গেইট ভাংচুর করিয়া এবং তথায় লাগানো সিসি ক্যামেরা ভাংচুর করিযা ভেতরে প্রবেশ করিয়া ঘরের বিভিন্ন দরজা জানালা ভাংচুর শুরু করিলে আমার পরিবারের সদস্যরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে আতংকিত হইয়া চিৎকার শুরু করিলে উক্ত ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণ তাদের দলীয় লোকজন আমার পরিবারের সদস্যদেরকে জীবন নাশ সহ মারাত্মক হুমকি প্রদান করিতে থাকেন। পাশাপাশি ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণের সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা ৬০-৭০ জন সন্ত্রাসী তাদের সাথে আনা বিভিন্ন ঘর নির্মাণ সামগ্রী তথা বাঁশের বেড়া, খুঁটি ইত্যাদি আমার পৈত্রিক ভিটার খালি জায়গায় স্থাপন করিয়া গৃহ নির্মাণ করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হইলে আমার পরিবারের সদস্যদের আত্মরক্ষার্থে চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এবং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হইলে ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণ তথায় অবস্থিত আমাদের অন্যান্য কাঁচা ঘরের ভাড়াটিয়া গার্মেন্টস কর্মীদেরকে নির্যাতন করিবে এবং পেট্রোল দিয়ে ঘর জ্বালাইয়া দিবে ইত্যাদি হুমকি দিয়া পালিয়ে যায়। কিছু দুস্কৃতিকারী ঘটনা চলাকালীন সময় আনুমানিক ৬০-৬৫ টি দেশী মুরগি এবং ৩০টি টবের চারা এবং মূল্যবান কাপড়-চোপড় নিয়ে যায। আমার পরিবারের সদস্যরা থানা প্রশাসন ও র‌্যাব সদস্যদেরকে উপরোক্ত ঘটনার বর্ণনা করিলে তারা আমাদেরকে যথাযথ সহায়তা করে। ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণের এহেন ভাংচুরে আমাদের ঘরের আনুমানিক ১ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়। উল্লেখ্য যে, ভুমিদস্যু মাহবুবুল আলম প্রঃ আরএসপিএস মাহবুবকে ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী হিসাবে পরিচয় দিলেও অঢেল টাকা ও সম্পত্তির মালিক হিসাবে এলাকায় ব্যাপক জনশ্র“তি রয়েছে। উক্ত ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীগণের ক্রমাগত ধারাবাহিক নির্যাতন ও হুমকির প্রেক্ষিতে আমার পরিবার বর্তমানে শংকিত ও আতঙ্কিত জীবন যাপন করছেন। তাই প্রশানের প্রতি আমাদের দাবি উক্ত ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শান্তির দাবি জানাচ্ছি।