নির্বাচন হবে বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে

নিউজচিটাগাং২৪/ এক্স প্রকাশ:| শুক্রবার, ১১ মে , ২০১৮ সময় ০৭:৪৯ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন, ২০১৮ সালের নির্বাচন হবে বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে। সেই নির্বাচনে দেশের সকল রাজনৈতিক দল অংশগ্রহণ করবে। ২০ দলকে বাইরে রেখে দেশে কোন সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ, প্রতিনিধিত্বমূলক ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে না। জনগণ তা হতে দেবে না।

তিনি আজ শুক্রবার ১১ মে সকালে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব মিলনায়তনে চট্টগ্রাম মহানগর লেবার পার্টির উদ্যোগে ২০ দলীয় জোট নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে সংহতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বেগম জিয়া শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করতে নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই লক্ষে আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি। প্রয়োজনে সময়োপযোগী কঠোর আন্দোলনে যাবে দেশের সাধারণ জনগণ।

চেয়ারম্যান আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বাইরে রাখার জন্য মিথ্যা মামলায় কারাগারে রাখা হয়েছে। দেশে যদি আইনের শাসন থাকতো, তাহলে আপিলের মাধ্যমে উচ্চ আদালত থেকে খালেদা জিয়া মুক্তি পেতো। খালেদা জিয়াকে একা, একটি নির্জন কারাগারে রাখা হয়েছে। যেখানে থাকা-খাওয়ার তেমন ভাল সুযোগ নেই। খালেদা জিয়া আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। সরকার কোন সু-চিকিৎসা করাতে দিচ্ছে না খালেদা জিয়াকে। ইউনাইটেড হাসপাতালসহ দেশের যেকোন উন্নত হাসপাতালে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা করার সুযোগ দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে ডা. ইরান বলেন, লন্ডন থেকে আওয়ামী স্বৈরাচার সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ শুরু হয়েছে। সেইজন্য প্রধানমন্ত্রী তারেক রহমানকে নিয়ে অশালীন কথা বলছে। প্রধানমন্ত্রী এখন আতংকিত। অন্যদিকে এরশাদকে খুশি করার জন্য শেখ হাসিনা বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার সাজানো নাটক সাজিয়ে বেগম জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছে। কোন শর্ত ছাড়াই খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে অবিলম্বে মুক্তি দেওয়ারও দাবি জানান তিনি।

.
সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ২ কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আজ কারাগারে রাখা হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে জাতি আজ উদ্বিগ্ন। অবিলম্বে খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করে স্বাস্থ্যগত সমস্যাগুলো আশু সমাধান করতে হবে।

তিনি বলেন, অন্যায়ভাবে প্রধান বিচারপতিকে যতদিন পেরেছেন ব্যবহার করেছেন, যখন তার প্রয়োজন শেষ হয়েছে, তখন তাকে টিস্যু পেপারের মত ছুঁড়ে ফেলেছে। ১/১১ সরকারের সময় বেগম জিয়া দেশের বাইরে যাননি। কিন্তু হাসিনা দেশের বাইরে পালিয়ে গিয়েছিলেন। যদি বেগম জিয়াকে বাইরে পাঠাতে পারতো তাহলে ২ মাইনাস ফর্মুলা চালু হয়ে গিয়েছিল।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন লেবার পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহসচিব প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আবু সুফিয়ান।

চট্টগ্রাম মহানগর লেবার পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবছার আলী সেলিমের সভাপতিত্বে ও চট্টগ্রাম মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল উদ্দিনের সঞ্চালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ লেবার পার্টির অর্থ সম্পাদক এডভোকেট আল আমিন, চট্টগ্রাম মহানগর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আবছার উদ্দিন, বিএনপি নেতা মনজুরুল আলম মনজু, আনোয়ার হোসেন লিপু, লেবার পার্টির নেতা ডা. জুনু মিয়া,আকতারুজ্জামান, মাস্টার ফরিদ উদ্দিন, মাস্টার রেজাউল করিম, মোহাম্মদ হোসোইন ও ছাত্রমিশন নেতা মো. রাসেল প্রমুখ।